বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পুলিশের একটি সূত্র জানায়, সম্প্রতি উপজেলার দত্তগাতী দামুখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অফিস সহায়ক, পরিচ্ছন্নতাকর্মী ও আয়া পদে তিনজনকে নিয়োগ দেয় কর্তৃপক্ষ। নিয়োগে প্রায় ৩০ লাখ টাকার লেনদেন হয়। ওই লেনদেনে রকিবুল ৯ লাখ টাকা দাবি করেছিলেন। গতকাল সদ্য নিয়োগ পাওয়া ওই তিনজন বিদ্যালয়ে যোগদান করেন। সন্ধ্যায় টাকা নিতে তিনি দত্তগাতী গ্রামে যান। ওই টাকা ভাগাভাগির দ্বন্দ্বে তিনি খুন হতে পারেন।

অভয়নগর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মিলন মণ্ডল বলেন, রকিবুল হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় থানায় এখনো মামলা হয়নি। লাশ দাফনের পরে আজ রাতে মামলা হতে পারে। তিনি বলেন, রকিবুলের বিরুদ্ধে ফুলতলা ও অভয়নগর থানায় একাধিক মামলা আছে। তিনি অভয়নগর উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা মোল্যা ওলিয়ার রহমান হত্যা মামলার অভিযোগপত্রভুক্ত আসামি। তিনি বলেন, একটি বিদ্যালয়ের নিয়োগের টাকা ভাগাভাগির দ্বন্দ্বে তাঁকে হত্যা করা হয়ে থাকতে পারে। বিষয়টি সামনে নিয়ে তাঁরা তদন্ত করছেন। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে দুজনকে আটক করা হয়েছে।

আটক ব্যক্তিরা হলেন অভয়নগর উপজেলার পায়রা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) ৮ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য দামুখালী গ্রামের মিলন হালদার ও ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক সদস্য দত্তগাতী গ্রামের সাইফুল ইসলাম মোল্যা।

পুলিশ ও এলাকার বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার কিছুক্ষণ আগে স্ত্রীকে সঙ্গে নিয়ে মোটরসাইকেলে যশোরের অভয়নগর উপজেলার দত্তগাতী গ্রামের একটি বাড়িতে বেড়াতে আসেন রকিবুল। সেখান থেকে রাতে দত্তগাতী-জামিরা বাজার ইটের সড়ক দিয়ে তিনি বাড়িতে ফিরছিলেন। রাত সাড়ে আটটার দিকে দত্তগাতী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কাছে পৌঁছান। তখন আগে থেকে ওত পেতে থাকা সন্ত্রাসীরা তাঁর মোটরসাইকেলের গতি রোধ করে বুকে, কানের নিচে ও ডান হাতে গুলি করে পালিয়ে যায়। এ সময় ঠেকাতে গিয়ে তাঁর স্ত্রীর হাতে ও পেটে গুলি লাগে। স্থানীয় বাসিন্দারা তাঁদের উদ্ধার করে রাত ৯টার দিকে ফুলতলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক রকিবুলকে মৃত ঘোষণা করেন।

ফুলতলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক তানজিলা শারমিন প্রথম আলোকে বলেন, অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের কারণে গুলিবিদ্ধ রকিবুলের মৃত্যু হয়েছে। অন্যদিকে বর্ষাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন