বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

খালিয়াজুরী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এইচ এম আরিফুল ইসলাম বলেন, ধনু নদের পানি বাড়ায় বাঁধে পানির চাপ বেড়েছে। বাঁধ রক্ষায় তাঁরা মাঠে আছেন। এরই মধ্যে হাওরের প্রায় ৬৫ শতাংশ ধান কাটা হয়ে গেছে। বাকি খেতের ধান দ্রুত কাটা হচ্ছে।

পাউবো সূত্র জানায়, ভারতের মেঘালয় ও চেরাপুঞ্জিতে গত বৃহস্পতিবার আবার ভারী বৃষ্টি শুরু হয়েছে। খালিয়াজুরীর ধনু নদে এর প্রভাব পড়ছে। ধনু নদ ছাড়াও জেলার কংস, সোমেশ্বরী, উব্দাখালীসহ ছোট-বড় নদ-নদীর পানি বাড়া অব্যাহত আছে। পানি বাড়ায় মদন ও খালিয়াজুরীর বিভিন্ন হাওরের অন্তত ২৫টি ফসল রক্ষা বাঁধ আবার হুমকির মধ্যে পড়েছে। এর মধ্যে কীর্তনখোলা বাঁধের চারটি অংশ মারাত্মক হুমকির মুখে আছে। কৃষকেরা আশঙ্কা করছেন, যেকোনো সময় বাঁধ ভেঙে তলিয়ে যেতে পারে শত শত একর জমির বোরো ধান। তবে বাঁধ রক্ষায় তাৎক্ষণিকভাবে সংস্কারকাজও চলছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন