default-image

নেত্রকোনার পূর্বধলা উপজেলায় ট্রাকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষে ঘটনাস্থলে সিএনজিচালিত অটোরিকশার একজন যাত্রী নিহত হন। হাসপাতালে নেওয়ার পর অটোরিকশাটির চালকও মারা গেছেন।

আজ শনিবার শ্যামগঞ্জ-বিরিশিরি সড়কের বামনখালী এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত যাত্রী হলেন হারুন মিয়া (৩৫)। তিনি গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজেলার চর আলীনগর গ্রামের আবুল কাসেমের ছেলে। একই ঘটনায় মারা যাওয়া চালকের নাম তারা মিয়া (২৮)। তিনি ময়মনসিংহের তারাকান্দা উপজেলার লালমা বিশকা গ্রামের আবদুর রশিদের ছেলে। তারা মিয়াকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল।

ট্রাকটি জব্দ করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।
মো. রফিকুল ইসলাম, পরিদর্শক (তদন্ত), পূর্বধলা থানা
বিজ্ঞাপন

এলাকার কয়েকজন বাসিন্দা ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, হারুন মিয়া আজ নেত্রকোনার দুর্গাপুর থেকে অটোরিকশায় করে ময়মনসিংহ যাচ্ছিলেন। সকাল আটটার দিকে ময়মনসিংহ থেকে দুর্গাপুরের সোমেশ্বরী নদীতে বালু নিতে যাওয়া একটি ট্রাক বামনখালী এলাকায় পৌঁছালে অটোরিকশাটির সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ ঘটে। এতে হারুন ঘটনাস্থলেই মারা যান। আশপাশের লোকজন তারা মিয়াকে উদ্ধার করে প্রথমে পূর্বধলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখান থেকে তাঁকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বিকেলে তিনি মারা যান।

পূর্বধলা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, ট্রাকটি জব্দ করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

মন্তব্য পড়ুন 0