বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সাইফুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, তাজুল ইসলামের বাড়ির পাশে ককটেল নিক্ষেপের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যান তিনি। সংবাদ সংগ্রহ করে ফেরার পথে শাহজাহান কোম্পানির বাড়ির সামনে পৌঁছালে সাত-আটজন মুখোশধারী তাঁর গাড়ির গতি রোধ করে। মুখোশধারীদের কয়েকজন তাঁকে এলোপাতাড়ি মারধর করে। সঙ্গে থাকা ক্যামেরা ভাঙচুর করে। এরপর মোটরসাইকেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। হামলাকারীদের সবার হাতে দেশীয় অস্ত্র ও বিস্ফোরক ছিল। এ সময় তাঁর চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। পরে তিনি ঘটনাটি থানা–পুলিশকে অবহিত করেন এবং স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা নেন।

চাটখিল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল খায়ের বলেন, সাইফুল ইসলামের ওপর হামলার খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক তিনি ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠান। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে কাউকে পায়নি। এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ দিলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন