বিজ্ঞাপন

পজিটিভ শনাক্ত হওয়া ৯৬ জনের মধ্যে ৫৪ জন সদর উপজেলার বাসিন্দা। বাকি ব্যক্তিদের মধ্যে বেগমগঞ্জের ২০, সোনাইমুড়ীর ৫, চাটখিলের ১, সেনবাগের ৪, কোম্পানীগঞ্জের ৪, কবিরহাটের ৬ ও ১ জন করে হাতিয়া ও সুবর্ণচরের বাসিন্দা।

নোয়াখালীর শহীদ ভুলু স্টেডিয়ামের কোভিড-১৯ ডেডিকেটেড হাসপাতালের সমন্বয়ক ও আবাসিক চিকিৎসক নিরুপম দাশ প্রথম আলোকে জানান, আজ শুক্রবার সকাল পর্যন্ত হাসপাতালটিতে ৪৮ জন ভর্তি ছিলেন। এর মধ্যে ৩৭ জন করোনায় আক্রান্ত ও ১১ জনের করোনার উপসর্গ আছে। ভর্তি রোগীদের মধ্যে একজন নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন।

জেলার সিভিল সার্জন মাসুম ইফতেখার জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে ইতিমধ্যে জেলা করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধ কমিটি পৌরসভা ও সদর উপজেলার ছয়টি ইউনিয়নে লকডাউনের মেয়াদ আরও এক সপ্তাহ বাড়িয়েছে।

দ্বিতীয় সপ্তাহের লকডাউন চলাকালে সিএনজিচালিত অটোরিকশা ও ব্যাটারিচালিত ইজিবাইকের চলাচল বন্ধ থাকবে। এ বিষয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে কঠোর নজরদারি করা হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন