বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

দিদার হোসেন দেওটি ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সাবেক চেয়ারম্যান। তিনি জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদকের দায়িত্বে রয়েছেন। পঞ্চম ধাপে চলমান দেওটি ইউপি নির্বাচনে তিনি মোটরসাইকেল প্রতীকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

হামলাকারীরা স্বতন্ত্র প্রার্থী দিদার হোসেনকে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে পার্শ্ববর্তী একটি গর্তে কাদার মধ্যে ফেলে দেন। আশপাশের লোকজনের সহায়তায় দলীয় লোকজন দিদার হোসেনকে উদ্ধার করেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, আজ বেলা ১১টার দিকে ভোট গ্রহণ চলাকালে স্বতন্ত্র প্রার্থী দিদার হোসেন তাঁর কয়েক সমর্থককে নিয়ে পিতাম্বরপুর মৌলভি রফিক উল্লাহ ইসলামিয়া মাদ্রাসা কেন্দ্র পরিদর্শনে যান। কেন্দ্র পরিদর্শন করে বের হওয়ার পথে ১৫-২০ জন তাঁর ওপর অতর্কিত হামলা চালান। হামলাকারীরা তাঁকে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে পার্শ্ববর্তী একটি গর্তে কাদার মধ্যে ফেলে দেন। আশপাশের লোকজনের সহায়তায় দলীয় লোকজন দিদার হোসেনকে উদ্ধার করেন। এ সময় দিদার হোসেনের আরও দুই সমর্থক আহত হয়েছেন। তবে তাঁদের নাম জানা যায়নি। আহত ব্যক্তিদের স্থানীয়ভাবে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

কারা এ হামলা করেছেন, এ বিষয়ে জানতে দিদার হোসেনের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তাঁর ফোন বন্ধ পাওয়া গেছে। জানতে চাইলে সোনাইমুড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হারুন-অর-রশিদ প্রথম আলোকে বলেন, স্বতন্ত্র প্রার্থী দিদার হোসেনের ওপর হামলার খবর পেয়ে তিনি ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছেন। কিন্তু পুলিশ গিয়ে কাউকে পায়নি। এ বিষয়ে জানার জন্য প্রার্থীর পক্ষের কাউকে খোঁজ করে পাওয়া যায়নি। এ ব্যাপারে প্রার্থী অভিযোগ দিলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন