default-image

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় এক তরুণীকে ঘর থেকে ডেকে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে স্থানীয় ইউপি সদস্যকে হাতেনাতে আটক করে পুলিশে দিয়েছেন স্থানীয় লোকজন। তাঁর নাম মো. হেলাল উদ্দিন। তিনি একটি ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য। গতকাল সোমবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও তরুণীর পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, চার থেকে পাঁচ মাস আগে ওই তরুণীর সঙ্গে এক যুবকের কাজি অফিসে বিয়ে হয়। কিন্তু গ্রামে আসার পর বিয়ের কোনো কাগজপত্র দেখাতে না পারায় এলাকার লোকজন যুবককে তাড়িয়ে দেন। এরপর থেকে স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. হেলাল উদ্দিন তরুণীকে প্রায়ই ফোন করতেন। সর্বশেষ গতকাল সন্ধ্যায় তরুণীর স্বামীর বিষয়ের কথা বলে তাঁকে ঘরের বাইরে ডেকে নেন ইউপি সদস্য হেলাল। সেখানে তিনি ওই তরুণীকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। তরুণীর চিৎকারে পরিবারের সদস্য ও আশপাশের লোকজন গিয়ে তাঁকে উদ্ধার করেন এবং ইউপি সদস্য হেলালকে হাতেনাতে আটক করেন। পরে থানায় খবর দেওয়া হলে পুলিশ গিয়ে তাঁকে থানায় নিয়ে যায়।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর জাহেদুল হক প্রথম আলোকে এই খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেন।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন