নোয়াখালীতে বাস–অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ২

বিজ্ঞাপন
default-image

নোয়াখালীতে যাত্রীবাহী বাস ও সিএনজিচালিত অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষ দুজন নিহত হয়েছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে আটটার দিকে নোয়াখালী পৌরসভার গেটের কাছে চৌমুহনী-মাইজদী মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটনা ঘটে।

নিহত ব্যক্তিরা হলেন অটোরিকশাচালক নোয়াখালী সদর উপজেলা নেয়াজপুর ইউনিয়নের দেবীপুর গ্রামের গ্রামের মৃত সালাউদ্দিনের ছেলে মহিউদ্দিন ফকির (৩৮) এবং একই গ্রামের মোহাম্মদ আলীর ছেলে কামাল উদ্দিন (৪২)।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

লক্ষ্মীপুরের চন্দ্রগঞ্জ হাইওয়ে থানার উপপরিদর্শক (এসআই) রিয়াদুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, রাত সাড়ে আটটার দিকে একটি যাত্রীবাহী বাস সোনাপুর থেকে ফেনীর দিকে যাচ্ছিল। চৌমুহনী-মাইজদী সড়কের নোয়াখালী গেটের কাছে পৌঁছালে যাত্রীবাহী বাসটির সঙ্গে একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। সিএনজিচালিত অটোরিকশাচালক মানসিক ভারসাম্যহীন এক পথচারীকে বাঁচাতে গেলে এই দুর্ঘটনা ঘটে। এতে অটোরিকশাটি বাসের নিচে ঢুকে দুমড়ে-মুচড়ে যায়। এ সময় ঘটনাস্থলে অটোরিকশার যাত্রী কামাল উদ্দিন মারা যান এবং চালক মহিউদ্দিন ফকির ও আরও এক যাত্রী আহত হন।

পরে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় সুধারাম ও বেগমগঞ্জ থানার পুলিশ আহত ব্যক্তিদের উদ্ধার করে নোয়াখালী ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় অটোরিকশাচালক মহিউদ্দিন ফকির মারা যান। আহত অন্যজন ওই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

লক্ষ্মীপুরের চন্দ্রগঞ্জ হাইওয়ে থানার এসআই রিয়াদুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে তাঁরা ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করেন এবং দুর্ঘটনাকবলিত গাড়ি দুটি জব্দ করেন। এ বিষয়ে নিহত ব্যক্তিদের স্বজনেরা মামলা করতে রাজি হননি। এ কারণে ময়নাতদন্ত ছাড়াই তাঁদের লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন