বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

প্রতিমন্ত্রী এম মাহবুব আলী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে দেশে বিমান খাতে বড় ধরনের বিপ্লব হয়েছে। এখানে একটি সুন্দর রানওয়ে রয়েছে। জায়গাও রয়েছে পর্যাপ্ত। মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে এর আগেও বিমানবন্দর এলাকার স্থানটি পরিদর্শন করা হয়েছে এবং ইতিমধ্যে এলাকাটি সার্ভেও করা হয়েছে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, সরকারের উদ্যোগের অংশ হিসেবে তিনি এখানে পরিদর্শনে এসেছেন। এখানে এসে আজকে নোয়াখালীবাসীর মধ্যে এখানে একটি বিমানবন্দর হওয়ার বিষয়ে যথেষ্ট আগ্রহ ও উৎসাহ দেখেছেন। তিনি আরও বলেন, ‘এর পরিপ্রেক্ষিতে এখানে একটি বিমানবন্দর করার বিষয়ে আমাদের দিক থেকে সর্বাত্মক সহযোগিতা থাকবে।’

প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন নোয়াখালী-৬ (হাতিয়া) আসনের সাংসদ আয়েশা ফেরদাউস, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মোকাম্মেল হোসেন, বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের প্রধান নির্বাহী (অতিরিক্ত সচিব) জাবেদ আহমেদ, প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত সহকারী মো. জাহাঙ্গীর আলম, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ খোরশেদ আলম খান।

পরিদর্শন শেষে প্রতিমন্ত্রী জেলার হাতিয়ার উদ্দেশে যাত্রা করেন। সেখানে প্রতিমন্ত্রী হাতিয়া ও নিঝুম দ্বীপের পর্যটন সম্ভাবনার স্থানগুলো পরিদর্শন করবেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন