বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

দুদক নোয়াখালী কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড ফেনী শাখায় কর্মরত অবস্থায় কর্মকর্তা (ক্যাশ) হাসান মোহাম্মদ রাশেদ পাঁচজন গ্রাহকের নগদ টাকার জমা ভাউচার জালিয়াতির মাধ্যমে মোট ১৮ লাখ ৩৭ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেন। তিনি ওই ৫ গ্রাহকের ২ লাখ ৪ হাজার টাকা, ৩ লাখ ২০ হাজার, ৩ লাখ টাকা, ৪ লাখ ও ৬ লাখ ১৩ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেছেন।

ইতিমধ্যে দুদকের করা অপর একটি মামলায় হাসান মোহাম্মদ রাশেদ জেলা কারাগারে আছেন।

সূত্র জানায়, অনিয়মের বিষয়টি ব্যাংকের অভ্যন্তরীণ নিরীক্ষায় ধরা পড়লে এ বিষয়ে ব্যাংকের শাখা ব্যবস্থাপক জসিম উদ্দিন দুদকে একটি অভিযোগ করেন। ওই অভিযোগের আলোকে দুদকের প্রাথমিক তদন্তে সত্যতা পাওয়া যায়। ঘটনাটি শাস্তিযোগ্য অপরাধ হওয়ায় দুদক তাঁর বিরুদ্ধে একটি মামলা করে।

দুদকের সমন্বিত নোয়াখালী কার্যালয়ের উপপরিচালক (ডিডি) সৈয়দ তাহসিনুল হক বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, মামলাটি দুদক তদন্ত করবে। তবে অভিযুক্ত ওই কর্মকর্তা অপর একটি মামলায় গ্রেপ্তার হন। গ্রেপ্তারের পর ব্যাংক কর্তৃপক্ষ তাঁকে বরখাস্ত করে। বর্তমানে তিনি নোয়াখালী জেলা কারাগারে রয়েছেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন