বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

নির্বাচন কমিশনের চিঠিতে বলা হয়, নবীপুর ইউপির নির্বাচন স্থগিতের আবেদন জানিয়ে হাইকোর্টে রিট করা হয়েছিল। এ বিষয়ে ২ নভেম্বর আদেশ হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে তৃতীয় ধাপে ২৮ নভেম্বর অনুষ্ঠেয় নবীপুর ইউপির নির্বাচন আইনগত বাধ্যবাধকতার কারণে আদেশের তারিখ থেকে ছয় মাসের জন্য স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে নির্বাচন কমিশন।

নবীপুর ইউপির সর্বশেষ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় ২০১৭ সালের ২৪ সেপ্টেম্বর। কিন্তু মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই গত ১৪ অক্টোবর নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন।

নবীপুর ইউপির সর্বশেষ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় ২০১৭ সালের ২৪ সেপ্টেম্বর। ওই নির্বাচনে বিজয়ীদের শপথ গ্রহণ হয় ওই বছর ২৩ অক্টোবর। প্রথম সভা হয় একই বছরের ৬ নভেম্বর। সে অনুযায়ী, পরিষদের মেয়াদ পাঁচ বছর পূর্ণ হতে এখনো প্রায় এক বছর বাকি রয়েছে। কিন্তু মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই গত ১৪ অক্টোবর নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন।

উদ্ভূত পরিস্থিতিতে নবীপুর ইউপির বর্তমান চেয়ারম্যান মো. আমিন উল্যাহ নির্বাচন স্থগিতের আবেদন জানিয়ে হাইকোর্টে রিট আবেদন করেন। গত ২ নভেম্বর আবেদনের শুনানি শেষে আদালত নবীপুর ইউপির নির্বাচন ছয় মাসের জন্য স্থগিতের আদেশ দেন।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ রবিউল আলম বিষয়টি নিশ্চিত করে বুধবার সন্ধ্যায় প্রথম আলোকে বলেন, নির্বাচন কমিশনের নির্দেশনা অনুযায়ী নবীপুর ইউপি নির্বাচনের চলমান সব প্রচার-প্রচারণা স্থগিত থাকবে। এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশন পরবর্তীতে সিদ্ধান্ত নেবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন