বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ইউসুফ আলী শেখ কয়েক বছর ধরেই চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হবেন বলে জানান দিচ্ছিলেন। সম্প্রতি ব্যানার, ফেস্টুন লাগিয়ে ও সামাজিক বিভিন্ন অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে নানাভাবে নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছিলেন তিনি। আসন্ন রাজাবাড়ি ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশী ছিলেন। তবে শেষ পর্যন্ত দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন হাসিনা মমতাজ। এরপর সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করে ইউপি সদস্য পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নেমেছেন ইউসুফ আলী।

রাজাবাড়ি ইউনিয়নের ভোটার মোবারক হোসেন বলেন, ইউসুফ আলী চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করবেন বলেই সবাই জানত। কিন্তু হঠাৎ আবার সদস্য পদে প্রার্থী হয়েছেন। ইউসুফ আলীর জনপ্রিয়তাও ভালো ছিল।

আরেক ভোটার ইব্রাহিম খলিল বলেন, নৌকা মার্কা না পেয়ে ইউসুফ আলী বিদ্রোহী প্রার্থী হবেন বলে ধারণা করা হচ্ছিল। কিন্তু তাঁর নতুন সিদ্ধান্তে তাঁর অনেক সমর্থক হতাশ হয়েছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ইউসুফ আলী বলেন, ‘দলীয় সিদ্ধান্তকে সম্মান জানিয়ে আমি বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নিইনি। এলাকায় আমার প্রচুর জনপ্রিয়তা আছে। মানুষ আমাকে ভালোবাসে। তাদের ভালোবাসার মূল্য দিতে গিয়ে চেয়ারম্যান প্রার্থী থেকে সরে এসে মেম্বার পদে নির্বাচন করছি। দলের মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থীর নির্বাচনী কাজেও আমার সহযোগিতা থাকবে।’

শ্রীপুর উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান জামান বলেন, ইউসুফ আলী দলের প্রতি যে আনুগত্য দেখিয়েছেন, এটা দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে। ওই প্রার্থী সত্যিকার অর্থেই মানুষের সেবা করতে চান। তাই তিনি পদের প্রতি আকৃষ্ট না হয়ে তিনি ইউপি সদস্য প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন