default-image

বরগুনার পাথরঘাটা পৌরসভা নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে ‘প্রকাশ্যে’ ভোট দিতে বলেছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. জাবির হোসেন। গত শনিবার রাতে পৌর এলাকার ৫ নম্বর ওয়ার্ডে নৌকা প্রতীকের সভায় তিনি এ–ও বলেছেন, নৌকায় ভোট না দিলে কেন্দ্রে যাওয়ার কোনো দরকার নেই।

সভায় বরিশালের আঞ্চলিক ভাষায় আওয়ামী লীগ নেতা জাবির হোসেন বলেন, ‘যার কান্দেই ভর দিয়া আন, ভোটটা কিন্তু নৌকাতেই দ্যাতে অবে। নৌকাডা কিন্তু ওপেনে দিতে হবে। হেইয়ার পর আপনে যারে খুশি কমিশনার–টমিশনার অন্যান্য যা আছে, সব দেবেন। কোনো আফত্তি নাই।’ তিনি আরও বলেন, ‘নৌকা নিশ্চিত করতে হবে ভোটকেন্দ্রে গিয়া। তা না হলে ভোট দিতে যাওয়ার দরকার নাই। আমি বললাম, ভোট দিতে যাওয়ার কোনো দরকার নাই, যদি নৌকায় ভোট দিতে না পারেন।’

এলাকার উন্নয়ন নিশ্চিত করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে জাবির হোসেন বলেন, ‘ভোটটা আপনাকে নিশ্চিত করতে হবে, আর উন্নয়ন আমরা নিশ্চিত করব। মেয়র সাহেব যদি না করে তাঁর বিরুদ্ধে আমরা প্রতিবাদ করব, আমরা আওয়ামী লীগ মিছিল দেব।’

বিজ্ঞাপন

ওই সভার বক্তব্য ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ায় ঘটনার পর থেকে এলাকায় ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা চলছে। অনেকেই সুষ্ঠু ভোট হওয়া নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন। সাধারণ ভোটাররা বলছেন, পাথরঘাটা নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হওয়ার নিশ্চয়তা পেলে তাঁরা ভোটকেন্দ্রে যাবেন, নয়তো যাবেন না।

৩০ জানুয়ারি পাথরঘাটা পৌরসভার নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আনোয়ার হোসেন। তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী চার মেয়র প্রার্থী হলেন আওয়ামী লীগের ‘বিদ্রোহী’ পাথরঘাটা উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি (বহিষ্কৃত) মোস্তাফিজুর রহমান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য (বহিষ্কৃত) শাহ আলম মল্লিক, বিএনপি মনোনীত শাহাবুদ্দিন সাকু ও স্বতন্ত্র প্রার্থী (জামায়াত সমর্থিত) মো. মাহবুর রহমান খান।

এ ব্যাপারে পাথরঘাটা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. জাবির হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, নেতা-কর্মীদের বৈঠক ছিল, দলীয় নেতা-কর্মীরা যাতে নৌকার বাইরে ভোট না দেন, তাঁর জন্য এই কথা বলা হয়েছে, সাধারণ ভোটারদের নয়।

জানতে চাইলে পাথরঘাটা পৌরসভা নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও পাথরঘাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সাবরিনা সুলতানা বলেন, ঘটনা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তবে পাথরঘাটা পৌরসভার নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করতে সব ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন