বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এর আগে গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে তিনটায় জাতীয় পার্টির প্রার্থী মো. লুত্ফুর রেজা মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেন। এখন ন্যাপের প্রার্থী নির্বাচন থেকে সরে গেলে আওয়ামী লীগের প্রার্থী প্রাণ গোপাল দত্ত বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সাংসদ নির্বাচিত হবেন।

ন্যাপের প্রার্থী মো. মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন ১৪ দলে ন্যাপ ও জাতীয় পার্টি আছে। ইতিমধ্যে জাতীয় পার্টির প্রার্থী মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নিয়েছেন। আমাকেও মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করার জন্য বিভিন্ন জায়গা থেকে বলা হচ্ছে। আমি বিষয়টি ন্যাপের কেন্দ্রীয় সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদককে জানিয়েছি। ওনারা আমাকে বিকেলের মধ্যে জানাবেন। আমি সেই অপেক্ষায় আছি।’

গত ৩০ জুলাই এ আসনের সাংসদ আলী আশরাফ মারা যান। এরপর ২ সেপ্টেম্বর শূন্য আসনে উপনির্বাচনের জন্য তফসিল ঘোষণা করা হয়। ঘোষিত তফসিল মোতাবেক ১৩ সেপ্টেম্বর চার প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দেন। এর মধ্যে ১৪ সেপ্টেম্বর মনোনয়ন ফরমের সঙ্গে স্ট্যাম্প ও ১ শতাংশ ভোটারের সই না থাকায় স্বতন্ত্র প্রার্থী সালেহ সিদ্দিকীর মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়।

উপনির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও কুমিল্লার আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. দুলাল তালুকদার জানান, গতকাল জাতীয় পার্টির প্রার্থী মো. লুত্ফুর রেজা মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেছেন। এখন আওয়ামী লীগ ও ন্যাপের দুই প্রার্থী আছেন। আগামী ৭ অক্টোবর ওই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন