default-image

নড়াইল পৌরসভায় প্রথমবারের মতো নারী মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন আঞ্জুমান আরা। ১৯ হাজার ৩২ ভোট পেয়ে মেয়র পদে তিনি বিজয়ী হন। আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী ছিলেন আঞ্জুমান আরা। তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির প্রার্থী মো. জুলফিকার আলী পেয়েছেন ৪ হাজার ৩৫৭ ভোট। ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলনের প্রার্থী মওলানা মোহাম্মদ খায়রুজ্জামান নির্বাচনে অংশ নেন। তিনি পেয়েছেন ১ হাজার ৩৬৬ ভোট। শনিবার নড়াইল পৌরসভায় এই ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়।

আঞ্জুমান আরা ছিলেন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক। শিক্ষকতা ছেড়ে এসেছেন রাজনীতিতে। ছাত্রজীবনে ছাত্রলীগের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। তাঁর স্বামী আইনজীবী সিদ্দিক আহমেদ দীর্ঘদিন ধরে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

পৌরসভায় চারজন মেয়র প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন। পরে আওয়ামী লীগের ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থী সরদার আলমগীর হোসেন ২৫ জানুয়ারি নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ান।

বিজ্ঞাপন

নবনির্বাচিত মেয়র আঞ্জুমান আরা বলেন, ‘জলাবদ্ধতা দূর করাসহ পৌরবাসীর নানা সমস্যার দ্রুত সমাধান করার চেষ্টা করা হবে। আমি হব জবাবদিহির মেয়র। সাংসদ মাশরাফি বিন মুর্তজার সহায়তায় এই পৌরসভাকে দেশের মডেল পৌরসভায় রূপ দেওয়া হবে।’

নড়াইল পৌরসভা প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯৭২ সালে। ১৯৭৪ সালে প্রথম নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। প্রথম পৌর মেয়র নির্বাচিত হন গাজী আলী করিম।

এদিকে কালিয়া পৌরসভায় বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী মো. ওয়াহিদুজ্জামান। তিনি ১২ হাজার ২৪২ ভোট পেয়েছেন। তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির প্রার্থী এস এম ওয়াহিদুজ্জামান পেয়েছেন ৬২৫ ভোট। এই পৌরসভায় চারজন মেয়র প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন। নির্বাচনের আগের দিন আওয়ামী লীগের ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থী ফকির মুশফিকুর রহমান নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ান। আরেক ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থী বি এম এমদাদুল হক ১০ জানুয়ারি মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন