default-image

নড়াইল সদর হাসপাতালের সেবা ফির (ইউজার ফি) টাকা আত্মসাতের অভিযোগে হাসপাতালের হিসাবরক্ষক জাহান আরা খানমকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে বরখাস্তের আদেশটি হাতে পেয়ে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক মো. আবদুস শাকুর। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের খুলনা বিভাগীয় পরিচালক রাশেদা সুলতানা গতকাল বুধবার তাঁকে বরখাস্ত করেন।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, হাসপাতালের সেবা ফির ২০১৯ সালের জুলাই থেকে ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারি মাস পর্যন্ত ২০ মাসের টাকা সরকারি কোষাগারে জমা দেওয়া হয়নি। কিন্তু টাকা জমার জাল চালান কার্যালয়ে সংরক্ষণ করা হয়েছে। ওই ঘটনায় গত ১৪ এপ্রিল জাহান আরা খানমের বিরুদ্ধে নড়াইল সদর থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছিলেন হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক মো. আবদুস শাকুর। এ ব্যাপারে জাহান আরার বিরুদ্ধে ২৪ এপ্রিল দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) যশোর সমন্বিত জেলা কার্যালয়ে মামলা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

এ বিষয়ে প্রথম আলোয় ৮ এপ্রিল ‘নড়াইল সদর হাসপাতাল: সেবা ফির টাকা নয়ছয়’, ১০ এপ্রিল ‘টাকা আত্মসাতের ঘটনায় অনুসন্ধান করবে দুদক’, ১৪ এপ্রিল ‘তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল, ৩৪টি চালান জাল’, ১৬ এপ্রিল ‘৪৮ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ, থানায় জিডি’ এবং ২৬ এপ্রিল ‘হিসাবরক্ষকের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা দায়ের’ শিরোনামে সংবাদ প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়।

হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক মো. আবদুস শাকুর প্রথম আলোকে বলেন, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের খুলনা বিভাগীয় পরিচালক রাশেদা সুলতানা বিষয়টি তদন্ত করতে তিন সদস্যের একটি কমিটি করেছিলেন। এর প্রধান ছিলেন মাগুরা সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক স্বপন কুমার কুন্ডু। ওই কমিটির প্রতিবেদনের ভিত্তিতে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে রাশেদা সুলতানা প্রথম আলোকে বলেন, তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনে জাহান আরা খানমের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হওয়ায় তাঁকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন