default-image

পঞ্চগড়ে ট্রাক্টর উল্টে দুই যুবক নিহত ও এক তরুণ আহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে পঞ্চগড় সদর উপজেলার ধাক্কামারা ইউনিয়নের কমলাপুর এলাকায় পঞ্চগড়-আটোয়ারী সড়কে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত দুই যুবক হলেন মুক্তার হোসেন (৩১) ও আবদুর রহমান (৩২)। আহত তরুণের নাম সুকুমার রায় (২২)। নিহত মুক্তার হোসেন ছিলেন এক্সকাভেটরচালক। তাঁর বাড়ি ঠাকুরগাঁও জেলার বালিয়াডাঙ্গী উপজেলায় দুওসুও এলাকায়। নিহত আবদুর রহমান ছিলেন ট্রাক্টরচালক। তাঁর বাড়ি একই উপজেলার গোয়ালকারী এলাকায়। আহত সুকুমার রায় উপজেলার কিসমত-পলাশবাড়ী এলাকার বাসিন্দা। তিনি ওই ট্রাক্টরচালকের সহকারী ছিলেন।

পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার রাত সোয়া ২টার দিকে মাটি কাটার যন্ত্র (এক্সকাভেটর) বহন করা ট্রাক্টরটি পঞ্চগড়-আটোয়ারী সড়ক দিয়ে আটোয়ারী উপজেলা শহরের দিকে যাচ্ছিল। ধাক্কামারা ইউনিয়নের কমলাপুর এলাকার সড়কে কালভার্ট নির্মাণকাজ চলছিল। সেখান দিয়ে যাওয়ার পথে হঠাৎ ট্রাক্টরটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে উল্টে যায়। এতে ট্রাক্টরের চালকের আসনে থাকা মুক্তার হোসেন ও আবদুর রহমান চাপা পড়েন। আর সুকুমার রায় ছিটকে দূরে পড়েন। খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস তিনজনকে উদ্ধার করে পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্য চিকিৎসক দুজনকে মৃত ঘোষণা করেন। প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে আহত সুকুমার রায়কে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

এক্সকাভেটর ও ট্রাক্টরের মালিক এমদাদুর রহমান মুঠোফোনে বলেন, এক্সকাভেটর দিয়ে তিনি বিভিন্ন এলাকায় ভাড়ায় মাটি কাটার কাজ করান। কয়েক দিন ধরে পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলায় এক্সকাভেটর দিয়ে কাজ চলছিল। সেখানে কাজ শেষ হওয়ায় আটোয়ারীতে কাজ শুরুর কথা ছিল। এ জন্য তিনজন শ্রমিক বোদা থেকে এক্সকাভেটরটি ট্রাক্টরে নিয়ে আটোয়ারী উপজেলা শহরের দিকে যাচ্ছিলেন। পথে দুর্ঘটনা ঘটে।

শুক্রবার সকালে পঞ্চগড় সদর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মোস্তাফিজুর রহমান প্রথম আলোকে বলেন, নিহত দুজনের লাশ পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। আহত ব্যক্তিকে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে স্থানান্তর করেছেন চিকিৎসকেরা। আইনি প্রক্রিয়া শেষে দুজনের লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন