নিহতের নাম ইশাদ (১৪)। সে দেবীগঞ্জ পৌরসভার কলেজপাড়া এলাকার কোরবান আলীর ছেলে। সে স্থানীয় জমির উদ্দিন দাখিল মাদ্রাসায় অষ্টম শ্রেণিতে পড়ত। আহত ব্যক্তিরা হলেন একই এলাকার মো. রাজুর ছেলে শাহীন (২২) এবং সামিউল ইসলামের ছেলে জীবন (১০)।

আহত শাহীন ও জীবনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী ব্যক্তিরা জানান, দুপুরে ইশাদ তার মোটরসাইকেলে প্রতিবেশী শাহীন ও জীবনকে নিয়ে ঘুরতে বের হয়। একপর্যায়ে তারা দেবীগঞ্জ উপজেলা শহর থেকে সোনাহার বাজারের দিকে যাচ্ছিল। এ সময় ধরধরা সেতু এলাকায় তাদের মোটরসাইকেলটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সেতুর রেলিংয়ে ধাক্কা খায়। এতে মোটরসাইকেল থেকে তিন আরোহী ছিটকে পড়ে গুরুতর আহত হয়। স্থানীয় লোকজন আহত তিনজনকে উদ্ধার করে দেবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক ইশাদকে মৃত ঘোষণা করেন। আহত শাহীন ও জীবনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

দেবীগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক হেলাল উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, নিহতের পরিবারের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে লাশ ময়নাতদন্ত ছাড়াই স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন