default-image

পটুয়াখালীতে নতুন করে আরও ৩০ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তদের মধ্যে স্বাস্থ্যকর্মী, শিক্ষক, ব্যাংক কর্মকর্তা, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য আছেন। এ নিয়ে জেলায় কোভিড–১৯ রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল ৪২১ জনে।

ঢাকার রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) পাঠানো নমুনা পরীক্ষার প্রতিবেদনের ভিত্তিতে গতকাল মঙ্গলবার এ তথ্য জানান পটুয়াখালীর সিভিল সার্জন।

এদিকে জেলায় করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া দুই ব্যক্তির নমুনা পরীক্ষার প্রতিবেদন পজেটিভ এসেছে। তাদের একজনের বাড়ি দশমিনা উপজেলায়। ওই ব্যক্তির বয়স ৬৬ বছর এবং তিনি অবসরপ্রাপ্ত একজন শিক্ষক ছিলেন। অপর ব্যক্তির বাড়ি সদর উপজেলায়। তাঁর বয়স ৬৫ বছর। তিনি ২৩ জুন পটুয়াখালী ২৫০ শয্যা হাসপাতালে মারা যান। এই দুজনসহ করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে মারা গেছেন ২০ জন।

পটুয়াখালীর জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্র জানায়, পটুয়াখালী জেলায় নতুন করে আরও ৩০ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। তাদের মধ্যে সদর উপজেলায় ১৮ জন এবং দশমিনা উপজেলায় ১২ জন।

পটুয়াখালী সিভিল সার্জন মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম বলেন, পটুয়াখালীতে করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে এ পর্যন্ত ২০ জন মারা গেছেন। তাদের মধ্যে বাউফলের ৭ জন, দুমকির দুজন, কলাপাড়ায় দুজন, সদর উপজেলায় ৩ জন, গলাচিপায় ৩ জন এবং দশমিনা, মির্জাগঞ্জ ও রাঙ্গাবালী উপজেলায় একজন করে আছেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন