default-image

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে পদ্মায় ধরা পড়েছে প্রায় ১৩ কেজি ওজনের একটি বড় চিতল মাছ। আজ শনিবার সকালে উপজেলার দৌলতদিয়া লঞ্চঘাট এলাকার পদ্মা নদীতে স্থানীয় জেলে আবদুস সালাম মিয়ার জালে মাছটি ধরা পড়ে। পরে মাছটি স্থানীয় মাছের আড়তদার শাহজাহান শেখ ১৯ হাজার ৫০ টাকায় কিনে নেন। সেই মাছ তিনি ঢাকার এক ব্যবসায়ীর কাছে ২১ হাজার টাকায় বিক্রি করেন।

পদ্মায় এমন বড় চিতল সব সময় পাওয়া যায় না। এত বড় চিতল এই মৌসুমে প্রথম কিনতে পারলাম। ঢাকার এক ব্যবসায়ীর কাছে মাছটি ২১ হাজার টাকায় বিক্রি করেছি
শাহজাহান শেখ, মাছের আড়তদার

স্থানীয় লোকজন বলেন, প্রতিদিনের মতো গতকাল শুক্রবার রাতে জাল নিয়ে নদীতে যান সালাম ও তাঁর দলের লোকজন। আজ ভোরের দিকে জালে আটকা পড়ে বড় আকারের একটি চিতল মাছ। ফেরিঘাট এলাকার মাছের আড়তদার মো. শাহজাহান শেখ দরদাম করে ১৫০০ টাকা কেজি দরে মাছটি কিনে নেন।

বিজ্ঞাপন

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় লোকজন বলেন, মাছটি ধরা পড়ার পর দৌলতদিয়ার ৫ নম্বর ফেরিঘাটে নিয়ে গেলে উৎসুক মানুষের ভিড় জমে। চিতল মাছটি একনজর দেখতে সেখানে ফেরির যাত্রীসহ স্থানীয় উৎসুক জনতা ভিড় জমান। আড়তঘরে ওজন দিয়ে দেখা যায়, চিতলটির ওজন ১২ কেজি ৭০০ গ্রাম। এ সময় মাছটি মেপে স্থানীয় মাছের আড়তদার মো. শাহজাহান শেখের কাছে দেড় হাজার টাকা কেজি দরে চিতলটি বিক্রি করেন আবদুস সালাম মিয়া।

আজ ভোরে সালাম ও তাঁর লোকজনের জালে ধরা পড়ে বড় আকারের চিতল মাছ। ফেরিঘাট এলাকায় নেওয়ার পর মাছটি দেখতে ভিড় জমান অনেকে।

মাছটির ক্রেতা মো. শাহজাহান শেখ বলেন, ‘পদ্মা নদীতে এমন বড় চিতল মাছ সব সময় পাওয়া যায় না। মাঝেমধ্যে ৪ থেকে ৫ কেজি ওজনের মাছ ধরা পড়ে। তবে এত বড় চিতল এই মৌসুমে প্রথম কিনতে পারলাম। প্রচুর চাহিদা থাকায় মাছটির দামও অনেক বেশি। জেলে সালাম মিয়ার কাছ থেকে ১৫০০ টাকা কেজি দরে মোট ১৯ হাজার ৫০ টাকায় মাছটি আমি কিনেছি। পরে ওই চিতল মাছ আমি ঢাকার এক পরিচিত ব্যবসায়ীর কাছে ২১ হাজার টাকায় বিক্রি করেছি।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন