default-image

রাজবাড়ীর কালুখালী উপজেলার কালিকাপুর ইউনিয়নের গতমপুর গ্রামে পদ্মা নদীতে মাছ ধরতে গিয়ে নিখোঁজের পর লাশ হয়েছে এক কিশোর। আজ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ভাটি থেকে লাশটি উদ্ধার করে ডুবুরি দল।

বিজ্ঞাপন

লাশ উদ্ধার হওয়া ওই কিশোরের নাম আহসান মোল্লা (১৪)। সে স্থানীয় এ জেড এম ছাকেন উচ্চবিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিল। তাঁর বাবার নাম খাজা উদ্দিন।

স্থানীয় বাসিন্দা শর্মা কর্মকার বলেন, আহসানের মা–বাবার মধ্যে বিচ্ছেদ হয়ে গেছে। মায়ের সঙ্গে আহসান নানাবাড়িতে বসবাস করে আসছিল। গতকাল সোমবার দুপুরে সে পদ্মা নদীতে মাছ ধরতে যায়। তার কাঁধে খেয়া জাল ও কোমরে গামছা দিয়ে পাতিল বাঁধা ছিল। সাঁতরে নদীর একটি পাড়ে ওঠার সময় সে মাঝপথে ডুবে গিয়ে নিখোঁজ হয়। খবর পেয়ে ডুবুরি দল এসে উদ্ধার অভিযান চালিয়েও তার সন্ধান পায়নি। পরে আজ সন্ধ্যার দিকে তার লাশ ভেসে উঠলে তা উদ্ধার করে ডুবুরি দল।

কালিকাপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান আতিয়ার রহমান বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, পরনের লুঙ্গি বা খেয়া জালে তার পা আটকে পানিতে ডুবে ছেলেটি মারা গেছে।

কালুখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুল হাসান বলেন, সন্ধ্যার কিছু সময় আগে আহসানের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন