বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ব্যবসায়ী লালু শাহর চাচাতো ভাই মোফাজ্জল হোসেন বলেন, পরিবারের সবাই গতকাল রাতে খাবার খেয়ে ঘুমিয়ে ছিলেন। আজ সকালে তাঁদের কারও সাড়াশব্দ না পেয়ে তাঁদের ঘরে গিয়ে সবাইকে অচেতন অবস্থায় পাওয়া যায়। ঘরের একটি আলমারি থেকে সাত ভরি সোনা ও চার লাখ টাকা নিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা। রান্নাঘরের একটি জানালার গ্রিল কাটা পাওয়া গেছে।

ছাতক থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ নাজিম উদ্দিন প্রথম আলোকে বলেন, রাতের খাবারের সঙ্গে নেশাজাতীয় কিছু মিশিয়ে তাঁদের খাওয়ানো হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। সেই খাবার খাওয়ার কারণে সবাই অচেতন হয়ে পড়েন। এ ঘটনায় জড়িত ব্যক্তিদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনার চেষ্টা চলছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন