এলাকার কয়েকজন বাসিন্দা ও মির্জাপুর ফায়ার সার্ভিস স্টেশন সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার খলিলুর রহমান কলেজের শিক্ষার্থী আবিদা মির্জাপুর সরকারি কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষা শেষে মা ও সহপাঠীদের সঙ্গে ব্যাটারিচালিত অটোরিকশাযোগে মির্জাপুর-পাথরঘাটা সড়ক দিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন। পথে দুপুর ১২টার দিকে ওই অটোরিকশাচালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তা থেকে প্রায় ১০০ ফুট গভীর নদে পড়ে যায়। এ দৃশ্য দেখে স্থানীয় লোকজন উদ্ধারকাজে অংশ নেন। এতে পানিতে ডুবে আবিদার মৃত্যু হয়।

উদ্ধারকাজে অংশ নেওয়া স্থানীয় বাসিন্দা আশরাফ মৃধা জানান, কিছু বুঝে ওঠার আগেই হঠাৎ অটোরিকশাটি নদে পড়ে যায়। স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় চালকসহ অন্যরা সাঁতরে নদের পাড়ে উঠতে পারলেও আবিদা পানিতে ডুবে যান। খবর পেয়ে বেলা দুইটার দিকে মির্জাপুর ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরিরা এসে তাঁর লাশ উদ্ধার করেন।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটির অধ্যক্ষ ফায়জুল ইসলাম বলেন, ভূগোল দ্বিতীয় পত্রের পরীক্ষা দিয়ে আবিদা বাড়ি ফিরছিলেন। পথে ওই মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। তাঁর মৃত্যুতে শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ আশপাশের এলাকার মানুষের মধ্যে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

আবিদার দুই সহপাঠী জানান, পরীক্ষা শেষে রায়হান নামের এক সহপাঠীর সঙ্গে তাঁর বিয়ের কথা ছিল।

মির্জাপুর ফায়ার সার্ভিসের লিডার নাজিউর রহমান জানান, আবিদার লাশ পরিবারের সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন