default-image

জয়পুরহাটের পাঁচবিবিতে ফারজানা আক্তার (১৯) নামে এক নববধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। গতকাল রোববার রাতে উপজেলার গণেশপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আজ সোমবার সকালে ফারজানাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে পুলিশ ময়নাতদন্তের জন্য লাশ জয়পুরহাট আধুনিক জেলা হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

স্বজনদের বরাত দিয়ে পাঁচবিবি থানা-পুলিশ জানিয়েছে, ফারজানা ও তাঁর স্বামীর বাড়ি একই গ্রামে। দেড় মাস আগে প্রেম করে বিয়ে করেন তাঁরা। ফারজানার স্বজনদের অভিযোগ, বিয়ের পর থেকেই স্বামীসহ শ্বশুরবাড়ির লোকজন তাঁকে মানসিক নির্যাতন করে আসছিলেন।

নিহত ব্যক্তির স্বামী হাফিজুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, রোববার রাতের খাবার খেয়ে নিজেদের কক্ষে স্বামী-স্ত্রী ঘুমাতে যান। গভীর রাতে ফারজানা ঘুম থেকে উঠে শয়নকক্ষের বাইরে যান। কিছুক্ষণ পর ফিরে আবার ঘুমিয়ে পড়েন। ভোরে ঘুম থেকে উঠে তিনি ঘরের বাঁশের আড়ার সঙ্গে ফারজানাকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখেন।

ফারজানার বাবা ফারুক হোসেন বলেন, তাঁর মেয়ে আত্মহত্যা করেছেন—এটি তিনি বিশ্বাস করেন না। এ ঘটনার যথাযথ তদন্ত চান তিনি।

পাঁচবিবি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পলাশ চন্দ্র দেব বলেন, পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছে। এটি আত্মহত্যা নাকি হত্যা, তা এখনই বলা যাচ্ছে না।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন