default-image

পাওনা টাকার দ্বন্দ্বে মো. জসিম মৃধা নামের এক ব্যবসায়ীর পায়ের রগ কেটে দেওয়া হয়েছে। গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় পটুয়াখালী-মির্জাগঞ্জ সড়কের পায়রাকুঞ্জ ফেরীঘাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আহত ব্যবসায়ী জসিমকে প্রথমে পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ও পরে রাতেই তাঁকে বরিশালের শের–ই–বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আহত ব্যবসায়ী জসিম মৃধা শহরের পুরোনো বাসস্ট্যান্ড এলাকার একজন বালু ব্যবসায়ী ও তাঁর নিজের খননযন্ত্র রয়েছে, যা ভাড়ায় ব্যবহার করছেন।

এদিকে গতকাল সন্ধ্যায় জসিমকে পাওনা টাকা নিতে পায়রাকুঞ্জ যেতে বলেন এনামুল ও রানা। জসিম সেখানে পৌঁছালে চার থেকে পাঁচজন সন্ত্রাসী অস্ত্র নিয়ে তাঁর ওপর ঝাঁপিয়ে পড়েন। একপর্যায়ে হামলাকারীরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জসিমের ডান পায়ের রগ কেটে দেন। জসিমের চিৎকারে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এলে হামলাকারীরা পালিয়ে যান। স্থানীয় লোকজন গুরুতর আহত জসিমকে পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসেন।

বিজ্ঞাপন

আহত ব্যবসায়ী জসিম বলেন, তাঁর মালিকানাধীন খননযন্ত্রটি পায়রাকুঞ্জ ফেরীঘাট এলাকার ব্যবসায়ী এনামুল ও রানা নামের অপর দুই ব্যবসায়ী মিলে ভাড়া নিয়ে এক মাস ধরে বালু উত্তোলন ও তাঁদের ব্যবসায়িক কাজে ব্যবহার করছেন। কিন্তু ওই ব্যবসায়ীরা নিয়মিত ভাড়া পরিশোধ না করায় তাঁদের কাছে ১ লাখ ৩৪ হাজার টাকা বকেয়া পড়ে যায়। বকেয়া টাকা চাওয়ার পরও টাকা না পেয়ে তিনি তাঁর খননযন্ত্রটি দিয়ে বালু উত্তোলন বন্ধ করে দেন। পরে এ নিয়ে জসিম মৃধার সঙ্গে এনামুল ও রানার দ্বন্দ্ব শুরু হয়। পরে পাওনা টাকা দেওয়ার কথা বলে ডেকে নিয়ে এনামুল ও রানা সন্ত্রাসীদের নিয়ে তাঁর ওপর হামলা চালান।

তবে এনামুল ও রানা তাঁদের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ অস্বীকার করে জানান, ব্যবসায়ী দ্বন্দ্বের কারণে তাঁদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ আনা হচ্ছে।

এ ব্যাপারে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আখতার মোর্শেদ জানান, ব্যবসায়িক দ্বন্দ্বে নিজেদের মধ্যে বিরোধকে কেন্দ্র করে এ হামলা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। আহত ব্যবসায়ী জসিম মৃধা বরিশালে চিকিৎসাধীন। তবে এ ঘটনায় এখনো কেউ অভিযোগ করেননি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন