বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধের সময় যে ভারত আমাদের সাহায্য করেছিল। এখন উন্নয়নের দিক থেকে আমরা তাদের ছাড়িয়ে গেছি। আজ মাতৃমৃত্যু, শিশুমৃত্যু, মানুষের গড় আয়ু, স্যানিটেশন, নিরাপদ সুপেয় পানির ব্যবস্থাসহ বিভিন্ন নাগরিক সুবিধা ভারত এখনো ৬০ ভাগ মানুষকেই দিতে পারেনি। এসব নাগরিক সুযোগ-সুবিধা আমরা প্রায় শতভাগ অর্জন করে ফেলেছি। আর পাকিস্তানের কথা বাদ দিন, সেটা তো ব্যর্থ, অকার্যকর, জঙ্গি রাষ্ট্রে পরিণত হয়েছে। আমাদের এসব উন্নয়নের পেছনে শেখ হাসিনার সদিচ্ছায় জনগণের আমানতের জনগণের জন্য যথার্থ ব্যবহার হয়েছে।’

দেশে গৃহহীন কোনো মানুষ থাকবে না উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, যাঁদের ঘরবাড়ি নেই তাঁদের ঘরবাড়ি করে দেওয়া হচ্ছে। আগের চেয়ে দুস্থদের বাড়ি বানানোর বরাদ্দ আরও বাড়ানো হয়েছে।

পঞ্চগড় জেলা প্রশাসক মো. জহুরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে পঞ্চগড়-১ আসনের সাংসদ মজাহারুল হক প্রধান, পঞ্চগড়ের সাবেক জেলা প্রশাসক ও খাদ্য মন্ত্রণালয়ের উপসচিব সাবিনা ইয়াসমিন, পুলিশ সুপার মোহাম্মাদ ইউসুফ আলী, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আনোয়ার সাদাত, পঞ্চগড় পৌরসভার মেয়র জাকিয়া খাতুন, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আমিরুল ইসলাম, বীর মুক্তিযুদ্ধা এ টি এম সারোয়ার হোসেন, আলাউদ্দিন প্রধান, সায়খুল ইসলাম বক্তব্য দেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন