default-image

লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) কামরুন নাহারের অপসারণ দাবি করে করেছেন পাটগ্রাম পাথর-বালু ব্যবসায়ী ও শ্রমিকেরা। সোমবার দুপুরে পাটগ্রাম প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলন করে এই দাবি জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে পাটগ্রাম উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও পাথর, বালু ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. মোফাজ্জল হোসেন বলেন, ৮ জানুয়ারি মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব শেখ রফিকুল ইসলাম পাটগ্রাম উপজেলার পাথর কোয়ারি বিষয়ে পাশের জেলার ব্যবসায়ীদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন। পরে বিষয়টি জানাজানি হলে পাটগ্রাম উপজেলার পাথর, বালু ব্যবসায়ী ও শ্রমিকদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দায়িত্বে থেকেও বিষয়টি তাঁদের অবগত না করায় দায়িত্বে অবহেলা হয়েছে। এ জন্য তাঁরা ইউএনওর অপসারণ দাবি করছেন।

বিজ্ঞাপন

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, ইউএনও কামরুন নাহার পাটগ্রাম উপজেলায় দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে জনসাধারণকে বিভিন্নভাবে হয়রানি করায় গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর পাটগ্রাম ঠিকাদার অ্যাসোসিয়েশনের ব্যানারে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করা হয়েছে। সেখানেও তাঁর অপসারণ দাবি করা হয়। তিনি (ইউএনও) নিরপেক্ষতা হারিয়ে ফেলেছেন। অবিলম্বে ইউএনও কামরুন নাহারকে অপসারণ করা না হলে রাস্তাঘাট অচল করে দেওয়া হবে।

উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মো. নাজমুল হুদা, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ও পাথর ব্যবসায়ী মো. আবু নাঈম জাহাঙ্গীর, পৌর যুবলীগের সভাপতি ও পাথর ব্যবসায়ী বিজয় কুমারসহ অন্যরা সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন।

এ বিষয়ে ইউএনও কামরুন নাহার বলেন, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের পক্ষ থেকে ওই মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়েছিল। মন্ত্রিপরিষদ যাঁদের আমন্ত্রণ জানিয়েছি, তাঁরাই মতবিনিময় সভায় অংশ নিয়েছেন। এ ক্ষেত্রে তাঁর কিছু করার ছিল না।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন