default-image

বরগুনার পাথরঘাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শাহাবুদ্দিনসহ সাত পুলিশ সদস্যের ওপর হামলার ঘটনায় মামলা করা হয়েছে। পাথরঘাটা থানার উপপরিদর্শক (এসআই) তারিকুল ইসলাম বাদী হয়ে গতকাল মঙ্গলবার রাতে পাথরঘাটা থানায় এ মামলা করেন।

ওই মামলায় সুমন শীল, জাহাঙ্গীর খান, রাসেল হাওলাদারসহ ১৮ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতনামা ২৫০ থেকে ৩০০ ব্যক্তিকে আসামি করা হয়েছে।

জানতে চাইলে পাথরঘাটা থানার ওসি (তদন্ত) সাঈদ আহমেদ প্রথম আলোকে বলেন, ওই মামলায় জাহাঙ্গীর খান ও রাসেল হাওলাদারকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। অপর আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

মামলায় সুমন শীল, জাহাঙ্গীর খান, রাসেল হাওলাদারসহ ১৮ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতনামা ২৫০ থেকে ৩০০ ব্যক্তিকে আসামি করা হয়েছে।

পাথরঘাটা থানা সূত্রে জানা গেছে, সরকারি কাজে বাধা দিয়ে অস্ত্রসহকারে দাঙ্গা-হামলা এবং পুলিশ সদস্য জখম হওয়ার ঘটনায় গতকাল রাতে পুলিশ মামলা করেছে। মামলার আসামিরা রামদা, ছ্যানা, পাইপ, লাঠিসহ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে জোটবদ্ধ হয়ে পুলিশের ওপর হামলা করেন। এ ঘটনায় পুলিশ রাবার বুলেট ছুড়ে আত্মরক্ষার চেষ্টা করে। তবে এর আগেই ওই হামলায় পাথরঘাটা থানার ওসি মো. শাহাবুদ্দিন (৪০), ওসির দেহরক্ষী মাসুম বিল্লাহ (২৫), ওসির গাড়িচালক মোহাম্মদ রাশেদ (২৮), কনস্টেবল সাজেদুল ইসলাম (২১) জখম হন। এ ছাড়া হামলায় ওসি (তদন্ত) সাঈদ আহমেদ, এসআই তারিকুল ইসলাম ও এসআই রাজেত আলী আহত হয়েছেন। আহত পুলিশ সদস্যরা পাথরঘাটা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিয়েছেন।

এ বিষয়ে বরগুনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তোফায়েল আহমেদ সরকার আজ বুধবার দুপুরে প্রথম আলোকে বলেন, পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় তদন্ত চলছে। তদন্ত করে ব্যবস্থাসহ আসামি গ্রেপ্তারের প্রক্রিয়া চলছে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন