শুক্রবার থেকে আগের সাত দিনে (৩-৯ জুলাই) জেলায় করোনা শনাক্ত হয়েছে মোট ১ হাজার ৪০৬ জনের। নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ২৪ দশমিক ৪৩। আগের সাত দিনে (২৬ জুন-২ জুলাই) এই হার ছিল ১৫ দশমিক ৭৭। আর সর্বশেষ এক সপ্তাহে করোনায় সংক্রমিত হয়ে মারা গেছেন ৫ জন। এ ছাড়া করোনার উপসর্গ নিয়ে জেলার বিভিন্ন এলাকায় আরও ২০ জনের মৃত্যুর খবর রয়েছে। আগের সপ্তাহে করোনায় সংক্রমিত হয়ে কারও মৃত্যুর তথ্য নেই।

এদিকে ২৫০ শয্যার পাবনা জেনারেল হাসপাতালের ১০০ শয্যার করোনা ইউনিট রোগীতে পরিপূর্ণ হয়ে গেছে। সেখানে এখন রোগী ভর্তি আছেন ৯৯ জন। তাঁদের মধ্যে রেড জোনে আছেন ২২ জন। পরিস্থিতি সামলাতে করোনা ইউনিটে আরও ৬০ শয্যা বৃদ্ধির উদ্যোগ নিয়েছে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ।

পাবনার সিভিল সার্জন চিকিৎসক মনিসর চৌধুরী বলেন, ‘সংক্রমণে ঊর্ধ্বগতি আমাদের শঙ্কিত করছে। সংক্রমিত রোগীদের চিকিৎসা দিতে করোনা ইউনিটের পরিসর বৃদ্ধির উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া মানুষকে ঘরে থাকতে পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। সবাই সচেতন হলে পরিস্থিতি দ্রুত নিয়ন্ত্রণে আসবে বলে আশা করছি।’

পাবনায় প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় ২০২০ সালের ১৬ এপ্রিল। জেলায় এ পর্যন্ত মোট ১ লাখ ৮ হাজার ৯৯ জনের নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। করোনা শনাক্ত হয়েছে ৬ হাজার ৪৪৩ জনের। করোনায় সংক্রমিত হয়ে মারা গেছেন মোট ২৭ জন।