বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন জেলা শহরের শালগাড়িয়া মহল্লার মাসুদুর রহমান (৪৫), কাজী আকাশ (২৫), আফজাল হোসেন (২৫) ও জীবন হোসেন (২২)। তাঁদের মধ্যে প্রথম ২ জনকে ১ মাস করে এবং পরের ২ জনকে ১৫ দিন করে কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

পুলিশ সুপার মহিবুল ইসলাম খান জানান, করোনায় আক্রন্ত হলে সাধারণ মানুষ অসহায় বোধ করছেন। হাসপাতালে ভর্তি এসব মানুষের অসহায়ত্বের সুযোগ নিয়ে একটি চক্র ব্যবসা শুরু করেছিল। তারা ভর্তি রোগী ও তাঁদের স্বজনদের মধ্যে হাসপাতালে অক্সিজেনের সংকট রয়েছে, এমন প্রচার চালাচ্ছিল। এরপর বাজারমূল্যের চেয়ে দুই–তিন গুণ বেশি দামে তাঁদের কাছে অক্সিজেন সিলিন্ডার ভাড়া ও বিক্রি করছিল। এতে বহু মানুষ প্রতারিত হচ্ছিলেন। পরে ডিবি পুলিশের একটি দল হাসপাতাল চত্বরে অভিযান চালিয়ে তাঁদের গ্রেপ্তার করে। তাঁদের জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতে হাজির করা হলে আদালত ২ জনকে ১ মাসের এবং অন্য ২ জনকে ১৫ দিনের কারাদণ্ড দেন। তাঁদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ সুপার মহিবুল ইসলাম খান আরও বলেন, জেনারেল হাসপাতালে অক্সিজেন সিলিন্ডারের কোনো সংকট নেই। পাশাপাশি জেলার বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠন অসহায় রোগীদের বিনা মূল্যে অক্সিজেন সিলিন্ডার সরবরাহ করছে। ফলে জেলায় অক্সিজেন সংকটের কোনো সম্ভাবনাই নেই। করোনার এই দুঃসময়ে কেউ অক্সিজেন নিয়ে এ ধরনের ব্যবসা করলে তাঁদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। অক্সিজেনসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে এ ধরনের ব্যবসা প্রতিরোধে জেলা পুলিশের কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন