default-image

সুনামগঞ্জের দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার ডুংরিয়া গ্রামে পারিবারিক বিরোধের জেরে মারামারিতে চাচা-ভাতিজার মৃত্যু হয়েছে। এতে আহত হয়েছেন অপর দুজন। আজ বৃহস্পতিবার সকাল আটটায় এ ঘটনা ঘটে। দুই পরিবারের মধ্যে উত্তেজনা থাকায় ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

মারা যাওয়া দুজন হলেন ডুংরিয়া গ্রামের আবদুল তাহিদ (৫৮) ও তাঁর আপন ভাতিজা রিপন মিয়া (৪০)।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ডুংরিয়া গ্রামের বাসিন্দা আবদুল তাহিদ ও তাঁর ভাতিজা রিপন মিয়ার মধ্যে জমিজমা নিয়ে বিরোধ চলছিল। এ নিয়ে গতকাল বুধবার রাতে এলাকার শান্তিগঞ্জ বাজারে আবদুল তাহিদের ছেলে জাকির হোসেন ও রিপন মিয়ার ভাই জমিল মিয়ার মধ্যে ঝগড়া হয়। এর জের ধরে আজ সকালে দুই পরিবারের মধ্যে কথা-কাটাকাটির একপর্যায়ে মারামারি শুরু হয়। এ সময় আবদুল তাহিদ খুন্তির আঘাতে ও রিপন মিয়া ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত হন। পরে দুজনকে উদ্ধার করে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে ডুংরিয়া গ্রামে দুজন বাসিন্দা জানান, আবদুল তাহিদ ও রিপন মিয়ার পরিবারের মধ্যে জমিজমা নিয়ে পূর্ববিরোধ ও মামলা-মোকদ্দমা আছে। এর জেরেই আজ সকালে তাঁদের মধ্যে মারামারি হয়। এতে চাচা-ভাতিজার মৃত্যু হয়েছে।

দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী মুক্তাদীর আহমদ বলেন, পারিবারিক বিরোধের জেরেই মারামারিতে দুজনের মৃত্যু হয়েছে। পরিস্থিতি শান্ত করতে গ্রামে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। নিহত দুজনের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন