default-image

চট্টগ্রামে পাসপোর্ট করতে গিয়ে ওবাইদুল হক (২৫) নামের এক রোহিঙ্গা যুবক আটক হয়েছেন। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে পাঁচলাইশ এলাকার পাসপোর্ট কার্যালয়ে পাসপোর্টের আবেদনপত্র যাচাই করার সময় তাঁকে রোহিঙ্গা হিসেবে শনাক্ত করা হয়। পরে কার্যালয়ের নিরাপত্তা প্রহরীরা তাঁকে আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দেন।

ওবাইদুল হক বাংলাদেশের জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) দেখিয়ে পাসপোর্টের আবেদন করেন। তাঁর এনআইডিটি যথাযথ নিয়ম মেনেই করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে এটা নির্বাচন কমিশন থেকে ইস্যু করা এনআইডি বলে পাসপোর্ট কার্যালয়ের কর্মকর্তারা জানান।

বিজ্ঞাপন

পাঁচলাইশ পাসপোর্ট কার্যালয়ের উপপরিচালক মাসুম হাসান প্রথম আলোকে বলেন, ওবাইদুল হক এনআইডি দেখিয়ে পাসপোর্টের জন্য আবেদন করেন। তাঁর এনআইডি ভুয়া মনে হয়নি। পরে তাঁর ফিঙ্গার প্রিন্ট নিয়ে রোহিঙ্গা যাচাই করার ব্যাংকে দেওয়া হলে তা মিলে যায়। রোহিঙ্গাদের ফিঙ্গার প্রিন্ট ব্যাংকেও ওবাইদুল হকের নাম একই। পরে আটক করে পুলিশকে দেওয়া হয়েছে।

এনআইডি যাচাই করে দেখা গেছে, ওবাইদুল চট্টগ্রামের লোহাগাড়া চুনতির ঠিকানা ব্যবহার করে জাতীয় পরিচয়পত্র পান ২০০‌৬ সালের ১৮ অক্টোবর। তাঁর এনআইডি নম্বর ১৯৯৬১৫১৪৭৩২০০০৪১০। তাঁর জন্মতারিখ ১৯৯৬ সালের ১৮ এপ্রিল দেখানো হয়। বাবার নাম আবুল কালাম ও মায়ের নাম রাবিয়া খাতুন। ধারণা করা হচ্ছে, ওবাইদুল ২০১৭ সালে রোহিঙ্গা ঢলের আগে মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে ঢুকেছিলেন।

জানতে চাইলে চট্টগ্রামের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মুহাম্মদ হাসানুজ্জামান প্রথম আলোকে বলেন, তিনি যে এনআইডি ব্যবহার করে পাসপোর্টের আবেদন করেছেন, তা প্রকৃত নাকি ভুয়া, তা যাচাই করে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ওবাইদুল হকের বিরুদ্ধে মামলা প্রক্রিয়াধীন বলে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে ।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন