default-image

পিরোজপুর শহরের মাছিমপুর মহল্লায় গতকাল রোববার বিকেলে এক শিক্ষিকার বাসা থেকে স্বপ্না আক্তার (১১) নামে এক গৃহকর্মীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

শিক্ষিকা মাহামুদা আক্তারের বাসায় চার বছর ধরে কাজ করছিল স্বপ্না। সে পিরোজপুর সদর উপজেলার দুর্গাপুর গ্রামের মেয়ে। পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, দুই মাস আগে স্বপ্না রাগ করে গ্রামের বাড়ি দুর্গাপুরে চলে যায়। এরপর মাহামুদা বেগম মেয়েটিকে আবার বাসায় ফিরিয়ে নেন।

স্বপ্নার চাচা হাবিবুর রহমান অভিযোগ করেন, স্বপ্নাকে বিভিন্ন সময় নির্যাতন করা হতো। স্বপ্নাকে হত্যা করে লাশ ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে।

এই অভিযোগের বিষয়ে মাহামুদা আক্তার বলেন, গতকাল দুপুর থেকে তিনি বাসায় ছিলেন না। তিনি বিকেলে বাড়ি ফিরে স্বপ্নার ঝুলন্ত লাশ রান্নাঘরে দেখতে পান। তারপর পুলিশ তার লাশ মর্গে পাঠায়। স্বপ্নাকে কখনো নির্যাতন করা হতো না। সে আত্মহত্যা করেছে।

পিরোজপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নূরুল ইসলাম বলেন, প্রাথমিকভাবে বিষয়টি আত্মহত্যা বলে মনে হয়েছে। তবে ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পাওয়ার পর মৃত্যুর কারণ জানা যাবে। তখন প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন