default-image

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলায় নিখোঁজের পরের দিন আল আমিন (২০) নামের এক কলেজছাত্রের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল রোববার রাতে উপজেলার উত্তর ভেজকী গ্রামের ফসলের মাঠ থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

নিহত আল আমিন উপজেলার উত্তর ভেজকী গ্রামের সিদ্দিক আঁকনের ছেলে। তিনি বরগুনার বামনা উপজেলার ডৌয়াতলা ওয়াজেদ আলী খান কলেজে স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষের ছাত্র ছিলেন।

পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, গত শনিবার রাত নয়টার দিকে আল আমিন রাতের খাবার খেয়ে ঘর থেকে বের হন। এরপর তিনি আর বাড়িতে ফেরেননি। পরদিন রোববার পরিবারের লোকজন তাঁকে খোঁজাখুঁজি করেন। কিন্তু কোথাও পাননি। সন্ধ্যায় কয়েক কিশোর মাঠের মধ্যে আল আমিনের লাশ দেখতে পেয়ে স্থানীয় লোকজনকে জানান। খবর পেয়ে রাতে পুলিশ গিয়ে লাশটি উদ্ধার করে। তাঁর মাথা ও গলায় আঘাতের চিহ্ন আছে। পায়ে দড়ি দিয়ে বাঁধার মতো চিহ্ন আছে। পুলিশ ধারণা করছে, তাঁকে পা বেঁধে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে।

আল আমিনের বাবা সিদ্দিক আঁকন বলেন, আল আমিনের সঙ্গে এক আত্মীয়ের বিরোধ আছে। সেই বিরোধের জেরে তাঁকে খুন করা হতে পারে।

মঠবাড়িয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এ জেড এম মাসুদুজ্জামান বলেন, ধারণা করা হচ্ছে আল আমিনকে মাঠের মধ্যে নিয়ে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে। আজ সকালে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ পিরোজপুর সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা হবে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন