বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সাবেক সাংসদ আউয়াল পিরোজপুর-১ আসনের বর্তমান সাংসদ এবং মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিমের দিকে ইঙ্গিত করে কর্মকর্তাদের উদ্দেশে বলেন, ‘কার বাসায় যান? কখন যান? কিসের জন্য যান? কী নির্দেশনা চান? কেউ ঠেকাতে পারবে না। আর যদি ঠেকাতে চান, থাকেন। সময়-কাল কথা বলবে।’

এ কে এম এ আউয়াল স্থানীয় প্রশাসনের কর্মকর্তাদের উদ্দেশে বলেন, ‘আপনাদের যাঁরা গুরু, তাঁরা কিন্তু আমাকে স্যার বলেন। আমি ডকুমেন্ট তৈরি করে ফেলেছি। আপনারা কে কোথায় কী বলেন...। কার নামে কাজ নিয়েছেন। কে কাজ তৈরি করে, আমি জানি। সব রেকর্ড কাগজ-কলমে কথা বলবে। যদি কাজ শুরু হয় এগোতে পারবেন না।’

১১ নভেম্বর নাজিরপুর উপজেলার শ্রীরামকাঠি, শাঁখারিকাঠি ও দীর্ঘা ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। সম্প্রীতি সমাবেশে আউয়াল উপস্থিত জনতাকে শপথ করিয়ে বলেন, ‘আপনারা নৌকার পক্ষে কাজ করবেন ও ভোট দেবেন।’ সমাবেশে বেশির ভাগ বক্তা নৌকার পক্ষে ভোট চান। সমাবেশে উপজেলার শ্রীরামকাঠি, শাঁখারিকাঠি ও দীর্ঘা ইউনিয়নের নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থীরাও ভোট চেয়ে বক্তব্য দেন। নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করে তাঁরা বড় ধরনের সমাবেশের আয়োজন করে দলীয় প্রার্থীর পক্ষে ভোট চান। এসব ঘটনায় উপজেলা প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা ও ইউপি নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী চেয়ারম্যান প্রার্থীদের মধ্যে বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।

উপজেলার শ্রীরামকাঠি ইউনিয়নের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী ছিদ্দিকুর রহমান (চশমা প্রতীক) অভিযোগ করে বলেন, সম্প্রীতি সমাবেশের নামে শ্রীরামকাঠিসহ উপজেলার তিনটি ইউনিয়নের আসন্ন নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দলীয় প্রার্থীর পক্ষে ভোট চাওয়া ও বিরোধী মতাদর্শের ভোটারদের হুমকি দেওয়া হয়েছে। ভোটারদের প্রতিজ্ঞা করিয়ে ভোট চাওয়ায় তাঁদের ভোটাধিকার ক্ষুণ্ন করা হয়েছে।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. ছিদ্দিকুর রহমান বলেন, নির্বাচনের আগে প্রার্থীর পক্ষে কোনো বড় জনসমাবেশ নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন হয়। তবে ওই সমাবেশের অনুমতি দিয়েছেন ইউএনও।

ইউএনও মো. ওবায়দুর রহমান বলেন, আওয়ামী লীগের পক্ষে সম্প্রীতি সমাবেশের কথা বলে সমাবেশের অনুমতি নেওয়া হয়েছে।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মণীন্দ্র নাথ মজুমদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ওই সমাবেশে বক্তব্য দেন নাজিরপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অমূল্য রঞ্জন হালদার, মঠবাড়িয়া পৌরসভার মেয়র রফিউদ্দিন আহমেদ, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কানাই লাল বিশ্বাস প্রমুখ।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন