default-image

মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার আঞ্চলিক গাংনী-কাথুলী সড়কে ধলারমাঠ এলাকায় গতকাল সোমবার রাত ১২টার দিকে তিনজন পথচারী ডাকাতির শিকার হন। নগদ টাকা ও মুঠোফোন ছিনিয়ে নিয়ে তাঁদের বেদম মারধর করে ডাকাত দল।

ডাকাতির শিকার ওই তিনজন হলেন সদর উপজেলার মিল্টন হোসেন, মোহব্বত আলী, আরিফ হোসেন। তাঁরা বলেন, গতকাল রাতে গাংনী পৌর শহরে আয়োজিত ওয়াজ মাহফিল থেকে বাড়ি ফেরার পথে ধলার মাঠে সাত থেকে আটজনের একটি ডাকাত দল গাড়ি থামিয়ে প্রথম এলোপাতাড়ি মারধর করে। পরে পকেট থেকে মুঠোফোন ও নগদ টাকা নিয়ে সটকে পড়ে।

ডাকাতির শিকার হওয়া মিল্টন হোসেনের শ্বশুর খাইরুল ইসলাম আজ মঙ্গলবার সকালে মুঠোফোনে বলেন, গতকাল রাতে ডাকাত দল প্রথমে তাঁর জামাই মিল্টনকে মারধর করে। ওই সড়কে এর আগেও অনেকবার ডাকাতি হয়েছে। গরুর ব্যাপারীদের কাছ থেকে নগদ ছয় লাখ টাকা ছিনিয়ে নেওয়ার ঘটনাও ঘটেছে। পুলিশের ভূমিকা জোরালো থাকলে ডাকাত দল সক্রিয় হতে পারত না।

জানতে চাইলে ধলা পুলিশ ফাঁড়ির উপপরিদর্শক (এসআই) নজরুল ইসলাম বলেন, সড়কটিতে রাতের বেলায় পুলিশের একটি টহল দল থাকে। গত রাত ১২টার দিকে দলটি একটি গ্রেপ্তারি পরোয়ানাভুক্ত আসামিকে ধরার জন্য চলে আসে। এরপরই ডাকাতির ঘটনা ঘটে।

গাংনী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বজলুর রহমান বলেন, গাংনী উপজেলার ধলার মাঠে একসময় রাতের বেলায় প্রায়ই ডাকাতির ঘটনা ঘটত। পুলিশের ব্যাপক তৎপরতার কারণে ডাকাতির ঘটনা উপজেলাতে একেবারে কমে গিয়েছিল। অপরাধীদের আটক করার জন্য একাধিক পুলিশের দল মাঠপর্যায়ে কাজ করছে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন