default-image

ইউএনও ওয়াহিদা খানম ও তাঁর বাবার ওপর হামলার ঘটনায় তদন্তের বিষয়ে রংপুর বিভাগীয় কমিশনার আবদুল ওয়াহাব ভূঞা পুলিশ বাহিনীর ওপর আস্থা রাখার কথা বলেছেন। তিনি বলেন, ‘একটি ঘটনায় যখন মামলা হয়, সেটা তদন্ত করার দায়িত্ব আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর। অন্য কেউ তদন্ত করতে পারে না। সে ক্ষেত্রে তদন্তের বিষয়ে পুলিশ বাহিনীর প্রতি আমাদের আস্থা আছে।’

ইউএনওর ওপর হামলার ঘটনায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা তদন্তকাজ করছেন উল্লেখ করে বিভাগীয় কমিশনার বলেন, ‘এই ঘটনায় ইতিমধ্যে একটি মামলা হয়েছে। আমরা বিশ্বাস করি পুলিশ বাহিনী সঠিক সময়ে সেটা বের করে আনবে। যারা প্রকৃত অপরাধী, তাদের আইনের আওতায় এনে উপযুক্ত শাস্তি প্রদানসহ আমরা ন্যায়বিচার পাব।’

আজ মঙ্গলবার বিকেল চারটার দিকে দিনাজপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে ছাদবাগান উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আবদুল ওয়াহাব ভূঞা এসব কথা বলেন।

বিজ্ঞাপন
default-image

চিকিৎসকের বরাত দিয়ে বিভাগীয় কমিশনার আরও বলেন, ‘ইউএনও ওয়াহিদা খানম শারীরিকভাবে সুস্থতার দিকে। তবে ফাইনাল মন্তব্য করার সময় আসেনি। কাল বুধবার একটি বোর্ড বসবে। সেখানে সার্বিক বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হবে। বিষয়টি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী অবগত আছেন। সর্বোচ্চ উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে বিভিন্ন সময়ে নির্দেশনা প্রদান করছেন। আমরা আশা করি তিনি দ্রুত সুস্থ হয়ে জনগণের সেবায় নিয়োজিত হয়ে উন্নয়নকাজে অংশ নেবেন।’

প্রশাসনের তদন্তের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘প্রশাসনের বিষয়টি প্রশাসনিক। এটা পুলিশের তদন্তের সঙ্গে সম্পৃক্ত নয়। আমরা নিরাপত্তা জোরদারের বিষয়টি নিশ্চিত করতে পারি। ইতিমধ্যে দেশের প্রতিটি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বাসভবনে আনসার সদস্যদের মোতায়েন করা হয়েছে।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন দিনাজপুরের জেলা প্রশাসক মো. মাহমুদুল আলম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) সানিউল ফেরদৌস, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আসিফ মাহমুদ প্রমুখ।

বিজ্ঞাপন

হামলার ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে ৫ সেপ্টেম্বর ঢাকায় এক সংবাদ সম্মেলন করে বিসিএস প্রশাসন ক্যাডারের কর্মকর্তাদের সংগঠন বাংলাদেশ অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশন। তারা বলছে, কোনো কোনো মহল ঘটনাটি ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করতে ‘বিচ্ছিন্ন ও চুরির ঘটনা’ বলে অপপ্রচার চালাচ্ছে।

সেই সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি হেলালুদ্দীন আহমদ বলেছিলেন, যেহেতু পুলিশ, র‍্যাব ও সিআইডি ঘটনাটি তদন্ত করছে, তাই অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক কোনো তদন্ত কমিটি গঠন করা যায় না। তবে তদন্তকাজে সহযোগিতা করার জন্য রংপুরের বিভাগীয় কমিশনারের নেতৃত্বে একটি দল গঠন করে দেওয়া হয়েছে। তাঁরা প্রয়োজনে যাঁরা তদন্ত করছেন, তাঁদের সঙ্গে সময়ে সময়ে মতবিনিময় করবেন এবং তদন্তকাজের গতিবিধি পর্যালোচনা করবেন।

মন্তব্য পড়ুন 0