বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গতকাল দুপুরে শমশেরনগর বাজারে মাছের মেলা ঘুরে দেখা যায়, মেলায় বোয়াল, বাগাড়, চিতল, রুই, কাতলাসহ হরেক রকম মাছ। ৫ কেজি থেকে শুরু করে ২৫-৩০ কেজি ওজনের মাছ বিক্রি হচ্ছে মেলায়। প্রতি কেজি বড় মাছ বিক্রেতারা এক হাজার থেকে আড়াই হাজার টাকা চাইছেন।

ভানুগাছ বাজারের মাছ বিক্রেতা আরমান মিয়া এবারের মেলায় ১৬ কেজি ওজনের বোয়াল মাছ ও ২০ কেজি ওজনের কাতলা মাছ নিয়ে বসেছেন। তিনি বোয়াল মাছটির দাম হাঁকছেন ১৫ হাজার টাকা। ক্রেতারা ওই মাছ ১০ হাজার টাকা বললেও তিনি মাছটি বিক্রি করেননি। কাতলা মাছের দাম হাঁকছেন ১০ হাজার টাকা।

আরেক বিক্রেতা জাহাঙ্গীর মিয়া জানান, ২২ কেজি ওজনের কাতলা মাছের দাম ৪৫ হাজার টাকা হাঁকছেন। মাছটির দাম ২৫ হাজার টাকা পর্যন্ত উঠেছে।

শ্রীমঙ্গলের নতুন বাজারে রুই, কাতলা, বোয়াল, বাগাড়সহ বড় মাছের পাশাপাশি রয়েছে ছোট মাছও। মেলায় আসা লোকজন মাছ কেনার চেয়ে ঘুরে ঘুরে বেশি দেখছেন। অনেকে মাছের ছবিও তুলে নিচ্ছেন। সবার নজর কাড়ছে ৭৫ কেজি ওজনের বাগাড় মাছটি। মাছটি মেঘনা নদী থেকে এনেছেন মাছ বিক্রেতা হাফিজ আহমেদ।

হাফিজ বিকেল সাড়ে চারটায় বলেন, এ মাছের দাম তিনি চেয়েছেন ১ লাখ ৬০ হাজার টাকা। ৪৫ কেজি ওজনের আরেকটি বাগাড় মাছও এনেছেন তিনি। সেটার দাম চেয়েছেন ১ লাখ ২০ হাজার টাকা। বড় মাছটির দাম এখন পর্যন্ত ৭৫ হাজার টাকা উঠেছে। তিনি বিক্রি করেননি। যদি ভালো দাম না পান, তাহলে মাছটি কেটে বিক্রি করবেন।

মাছের বাজারে আসা কবির মিয়া বলেন, মেলায় মাছের দাম বেশি। তবে সাধ্য না থাকলেও দেখতে তো অসুবিধা নেই! সব সময় এই বাজারে এত বড় মাছ ওঠে না। পৌষ সংক্রান্তি উপলক্ষে এত বড় বড় মাছ উঠেছে। দামে পোষালে কিনবেন, না হলে খালি হাতে বাড়িতে যাবেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন