বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গুলশানে হোলি আর্টিজানে জঙ্গি হামলায় নিহত হওয়ার আগে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের জ্যেষ্ঠ সহকারী কমিশনার রবিউল করিম বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন শিশু-কিশোরদের জন্য ২০১১ সালে ব্লুমস কাটিগ্রাম প্রতিষ্ঠা করেন।

প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে গ্রামীণ জীবনের নানা অনুষঙ্গের ছবি আঁকে বিদ্যালয়ের বাক্‌ ও শ্রবণপ্রতিবন্ধী শিশু আঁখি আক্তার (১৬)। একই ধরনের প্রতিবন্ধিতা নিয়ে বেড়ে ওঠা আসিফ হোসেন (৭) আঁকে স্মৃতিসৌধের সামনে লাল-সবুজের পতাকা।

default-image

ছবি আঁকতে পেরে ভীষণ খুশি শারীরিক প্রতিবন্ধী আফসানা আক্তার (১৭)। সে প্রথম আলোকে বলে, ‘ছবি আঁকতে আমার ভীষণ ভালো লাগে। গাছ, ফুল, নদী আমার ভীষণ পছন্দের।’

প্রতিযোগিতায় প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের মধ্যে ৩০ জন শারীরিক প্রতিবন্ধী ও বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন শিশু-কিশোর অংশ নেয়। প্রতিযোগিতা শেষে তাদের পুরস্কার দেওয়া হয়।

শিশু-কিশোরদের মধ্যে ভালোবাসার সেতুবন্ধ তৈরি করে বন্ধুত্বপূর্ণ সমাজ গঠনের লক্ষ্যে ফারাজ হোসেন ফাউন্ডেশন কাজ করে যাচ্ছে। ১৫ এপ্রিল ফারাজের জন্মদিন উপলক্ষে দেশের বিভিন্ন এলাকায় তিন দিনব্যাপী চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার আয়োজন করে। এরই ধারাবাহিকতায় আজ ব্লুমসে বিশেষায়িত শিশু-কিশোরদের নিয়ে এ আয়োজন করা হয়।

ফারাজ হোসেন ফাউন্ডেশনের উপব্যবস্থাপক তাহমিদ ইবনে মাজহার প্রথম আলোকে বলেন, ফারাজ হোসেন ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে চিকিৎসাসেবা, বিনা মূল্যে ওষুধ বিতরণসহ প্রতিবন্ধী শিশু-কিশোরদের নিয়ে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করা হচ্ছে। ফারাজ মানবতার জন্য জীবন দিয়েছিলেন। তাঁর নামে গড়া ফাউন্ডেশনের সব কার্যক্রমই তাঁর ইচ্ছা ও স্বপ্নের প্রতিফলন।

ব্লুমস কাটিগ্রামের সভাপতি জি আর শওকত আলী বলেন, এ ধরনের আয়োজন বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন শিশু-কিশোরদের মানসিক বিকাশে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। পাশাপাশি বন্ধুত্বের জন্য ফারাজের অনন্য আত্মত্যাগের বিষয়েও সমাজের বিভিন্ন পর্যায়ের শিশু ও কিশোরসহ সবার জানার সুযোগ হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন