default-image

নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলায় শারীরিক ও বাক্‌প্রতিবন্ধী এক শিশুকে (১৪) ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে মিরাজ হোসেন (১৮) নামের এক তরুণকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আজ শনিবার আদালতের মাধ্যমে তাঁকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

গুরুদাসপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবদুল রাজ্জাক প্রথম আলোকে বলেন, গত বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলার একটি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ওই শিশুর দাদি বাদী হয়ে অভিযুক্ত ওই যুবকের বিরুদ্ধে শুক্রবার সন্ধ্যায় মামলা করেন। রাত ৮টার দিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ওই শিশুটির স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়। রাতেই অভিযুক্ত যুবককে তাঁর বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। অভিযুক্ত তরুণ রাজমিস্ত্রির সহকারী।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা গেছে, হাসপাতালের চিকিৎসক সঞ্চিতা সরকার শিশুটির স্বাস্থ্য পরীক্ষা করেন। পরীক্ষায় ধর্ষণের প্রাথমিক আলামত পাওয়া গেছে বলে নিশ্চিত করেছেন আবাসিক চিকিৎসক মো. রবিউল করিম।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, শিশুকে তার দাদির কাছে রেখে মা-বাবা ঢাকায় পোশাক কারখানায় চাকরি করেন। ঘটনার দিন নাতিকে রেখে বাড়ি থেকে ৩ কিলোমিটার দূরে একটি বাজারে চলে যান। এ সুযোগে অভিযুক্ত তরুণ ধর্ষণ করে চলে যান। বাড়িতে ফেরার পর ঘটনাটি জানতে পারেন দাদি।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন