default-image

নেত্রকোনার কেন্দুয়ায় মাদকাসক্ত এক যুবকের ছুরিকাঘাতে আবু সাদেক (৫৪) নামের এক ব্যক্তি খুন হয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। গতকাল সোমবার রাত সাড়ে আটটার দিকে উপজেলার কবিচন্দ্রপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর পুলিশ অভিযান চালিয়ে রাতেই ওই তরুণকে আটক করে।

নিহত আবু সাদেক বলাইশিমুল ইউনিয়নে ছবিলা গ্রামের লাল মিয়ার ছেলে। আর অভিযুক্ত ওই তরুণ হলেন পিন্টু মিয়া (২৫)। তিনি ছবিলা গ্রামের আনোয়ার হোসেনের ছেলে।

এলাকার কয়েকজন বাসিন্দা ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, পিন্টু মিয়া দীর্ঘদিন ধরে মাদকাসক্ত। নেশার টাকা জোগাড় করতে না পেরে তিনি তাঁর মা-বাবাকে বিভিন্ন সময় মারধর করতেন। প্রতিবেশী চাচা আবু সাদেক এ নিয়ে পিন্টুকে শাসন করতেন। এরপর থেকে পিন্টু তাঁর প্রতি ক্ষিপ্ত হন। গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় নেশার টাকা না পেয়ে পিন্টু তাঁর মা হাওয়া আক্তারের সঙ্গে খারাপ আচরণ করেন। এ সময় হাওয়া আক্তার আবু সাদেককে মুঠোফোনে বিষয়টি জানান। হাওয়া আক্তার আবু সাদেককে বাড়ি এসে চিকিৎসকের ব্যবস্থাপত্র অনুযায়ী পিন্টুকে ওষুধ খাওয়ানোর জন্য অনুরোধ করেন। এ কথা শুনে পিন্টু বাড়ি থেকে বেরিয়ে যান।

আবু সাদেক পাশের গ্রাম কবিচন্দ্রপুর ভাইয়ের বাড়ি থেকে ফিরছিলেন। পথে রাত সাড়ে আটটার দিকে স্থানীয় বাজার এলাকায় পৌঁছালে ওত পেতে থাকা পিন্টু মিয়া আবু সাদেকের ওপর হামলা চালিয়ে ছুরিকাঘাত করেন। এতে সাদেক গুরুতর আহত হলে স্থানীয় লোকজন তাঁকে উদ্ধার করে কেন্দুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। খবর পেয়ে পুলিশ অভিযান চালিয়ে পিন্টুকে আটক করে।

কেন্দুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী শাহ নেওয়াজ বলেন, পিন্টু মাদকাসক্ত। কিছুদিন আগেও তিনি মাদক নিরাময় কেন্দ্রে চিকিৎসাধীন ছিলেন। তাঁকে আটক করা হয়েছে। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ নিয়ে থানায় একটি হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন