default-image

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে প্রতিবেশীর সঙ্গে জমির বিরোধের জের ধরে ছুরিকাঘাতে আবুল কাশেম মিয়া (৫০) নামের এক কৃষক খুন হয়েছেন। আজ বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে পাঁচটার দিকে উপজেলার পাকশিমুল ইউনিয়নের তেলিকান্দি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আবুল কাশেম তেলিকান্দি গ্রামের আবদুল মন্নাফের ছেলে।

পুলিশ ও গ্রামবাসী সূত্রে জানা গেছে, ৫ শতাংশ জমি নিয়ে তেলিকান্দি গ্রামের আবুল কাশেমের সঙ্গে প্রতিবেশী সিদ্দিকুর রহমানের (৬৫)  এক বছর ধরে বিরোধ চলছে। তাঁরা সম্পর্কে চাচা-ভাতিজা। এ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে আদালতে মামলা চলছে। এ জমির বিরোধ নিয়ে বৃহস্পতিবার বিকেল পাঁচটার দিকে বাড়ির অদূরে গ্রামীণ সড়কে আবুল কাশেম ও সিদ্দিকুর রহমানের বাগবিতণ্ডা হয়। এ ঘটনার জের ধরে বিকেল সাড়ে পাঁচটার দিকে সিদ্দিকুর রহমানের ছেলে আলমগীর মিয়া ওরফে আনার মিয়া (২৫) বাড়ির অদূরে গ্রামীণ সড়কে আবুল কাশেমের পেটে উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত করেন। এতে তিনি অজ্ঞান হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। গ্রামের লোকজন তাঁকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার চেষ্টা করেন। গ্রামের অদূরে নিয়ে গেলে তিনি মারা যান। পরে গ্রামের লোকজন তাঁর লাশ বাড়িতে নিয়ে যান। আলমগীর মিয়াও পেশায় একজন কৃষক। আবুল কাশেম ও আনার মিয়া সম্পর্কে চাচাতো ভাই।

গ্রামের ইউপি সদস্য জয়নাল আবেদিন প্রথম আলোকে বলেন, বসতবাড়ির পাশের ৫ শতাংশ জমি নিয়ে উভয় পরিবারের লোকজনের মধ্যে বিরোধ চলে আসছে। গ্রামবাসীর উদ্যোগে একাধিকবার মীমাংসাও করা হয়েছে। কিন্তু কেউই এ মীমাংসা মানেন না। এতেই আজকের এ ঘটনা ঘটেছে। ঘটনার পরপর সিদ্দিকুর রহমানের পরিবারের লোকজন গ্রাম ছেড়ে পালিয়ে গেছেন।

সরাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ এম এম নাজমুল আহমেদ প্রথম আলোকে বলেন, ‘ঘটনা শুনেই আমি ওই গ্রামে যাই। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।’

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন