default-image

নরসিংদী শহরে সকালের প্রাতর্ভ্রমণের উদ্দেশ্যে রেললাইন ধরে হাঁটছিলেন এক নারী। রেললাইনের ডান পাশে হঠাৎ একটি রক্তাক্ত কাটা হাত পড়ে থাকতে দেখে আঁতকে ওঠেন তিনি। তাঁর চিৎকারে আশপাশের লোকজন জড়ো হয়ে যান। খবর পেয়ে রেলওয়ে পুলিশের সদস্যরা গিয়ে কাটা হাতটি উদ্ধার করেন। এ ঘটনা ঘটে আজ বৃহস্পতিবার সকাল সাতটার দিকে শহরের আরশীনগর রেলক্রসিং এলাকায়।

এদিকে নরসিংদীর রায়পুরার আমিরগঞ্জ রেলস্টেশন থেকে অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। আজ সকাল নয়টার দিকে রেলস্টেশনটির আউটার এলাকা থেকে ছিন্নবিচ্ছিন্ন অবস্থায় ওই লাশ উদ্ধার করা হয়। রেলওয়ে পুলিশ বলছে, শহরের আরশীনগর রেলক্রসিং এলাকা থেকে উদ্ধার হওয়া কাটা হাতটি এই লাশেরই অংশ।

রেলওয়ে সূত্রে জানা যায়, সিলেট থেকে ছেড়ে আসা সুরমা মেইল ট্রেনটি ঢাকার উদ্দেশে যাচ্ছিল। আজ সকাল সাতটার দিকে আমিরগঞ্জ স্টেশন অতিক্রম করার সময় ওই ব্যক্তি ট্রেনটির নিচে কাটা পড়েন। এতে তাঁর মাথা, শরীরের বিভিন্ন অংশ ও দুই হাত বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান। দুর্ঘটনার পর ওই ব্যক্তির একটি হাত ট্রেনের চাকার সঙ্গে আটকে প্রায় সাত কিলোমিটার দূরে আরশীনগর রেলক্রসিং এলাকায় গিয়ে পড়ে। নরসিংদী রেলওয়ে ফাঁড়ির পুলিশ প্রথমে ওই কাটা হাত ও পরে ছিন্নবিচ্ছিন্ন লাশ উদ্ধার করে।

নরসিংদী রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) মো. শাহ আলম বলেন, ধারণা করা হচ্ছে, নিহত ওই ব্যক্তি মানসিক ভারসাম্যহীন ছিলেন। তাঁর প্যান্টের পকেটে অল্প কিছু চাল ও একটি বোতলে সামান্য দুধ পাওয়া গেছে। এ ছাড়া আর কিছুই পাওয়া যায়নি। নিহত ওই ব্যক্তির পরিচয় জানার চেষ্টা চলছে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন