default-image

দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলায় প্রেমিকের ছদ্মবেশে এক কিশোরীকে ডেকে নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগে তিন যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আজ সোমবার সকালে গ্রেপ্তার ওই তিন যুবককে আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ।

গ্রেপ্তার তিন যুবক হলেন ঘোড়াঘাট উপজেলার ঘুঘুরা (ভোতাপাড়া) গ্রামের লাবু মিয়া (২৮), একই গ্রামের রাজমিস্ত্রি আশরাফুল ইসলাম (৩৫) ও পৌর এলাকার বাউপুকুর গ্রামের রাজমিস্ত্রি ওমর ফারুক (২১)।

এ ঘটনায় ওই কিশোরীর মা বাদী হয়ে থানায় একটি ধর্ষণ মামলা করেন। মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, দশম শ্রেণিতে পড়ুয়া ক্ষুদ্র জাতিসত্তার মেয়েটির সঙ্গে কিছুদিন আগে রাজু নামের এক যুবকের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। তাদের প্রেমের সম্পর্ক জানতে পারেন লাবু মিয়া। পরে ওই কিশোরীর ফোন নম্বর সংগ্রহ করে নিজেকে রাজু পরিচয় দিয়ে কথা বলতে শুরু করেন লাবু। গত ৩০ জানুয়ারি দিবাগত রাত তিনটায় কিশোরীকে এক লিচুবাগানে দেখা করতে বলেন লাবু। সেই কথা অনুযায়ী কিশোরী বাগানের কাছে গিয়ে কয়েকজনকে দেখতে পেয়ে দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করে। এ সময় লাবুর দুই সহযোগী ওমর ফারুক ও আশরাফুল মেয়েটির মুখ চেপে ধরেন। পরে লিচুবাগানের ভেতরে নিয়ে তাঁরা পর্যায়ক্রমে মেয়েটিকে ধর্ষণ করে ফেলে রেখে যান।

বিজ্ঞাপন

ওই কিশোরীর মা বলেন, ‘ওই তিনজন প্রায় সময় গাঁজা সেবন করে এসে আমাদের বিভিন্ন ভয়ভীতি ও হুমকি দিত। ভোরে মেয়েকে বিছানায় দেখতে না পেয়ে খুঁজতে বের হই। পরে লিচুবাগানে মেয়েকে পড়ে থাকতে দেখি। বাড়িতে আনার পর মেয়ের মুখে ঘটনা শুনে তাকে সঙ্গে নিয়ে থানায় গিয়ে মামলা করি।’

ঘোড়াঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজিম উদ্দিন বলেন, গতকাল রোববার সন্ধ্যায় কিশোরীকে নিয়ে তাঁর মা থানায় এসে মামলা করেছেন। পরে ওই রাতেই পৃথক স্থান থেকে অভিযুক্ত তিন যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়। কিশোরীটির শারীরিক পরীক্ষার জন্য দিনাজপুর এম আবদুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন