বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পুলিশ জানায়, রোববার দুপুরে ফরিদগঞ্জ উপজেলার গুপ্টি পূর্ব ইউনিয়নে স্কুল থেকে বাড়িতে যাওয়ার পথে তিন তরুণ ওই ছাত্রীকে তুলে পাশের একটি বাড়িতে নিয়ে দলবদ্ধ ধর্ষণ করেন। এ সময় তাঁরা ধর্ষণের ঘটনার ভিডিও ধারণ করে রাখেন এবং কাউকে না বলার জন্য ওই ছাত্রীকে হুমকি দেন। পরে ওই স্কুলছাত্রী তার মাকে বিষয়টি জানালে রাতে তার মা বাদী হয়ে ফরিদগঞ্জ থানায় একটি ধর্ষণ মামলা করেন। মামলায় ওই বাড়ির নারী লিপি বেগমকে ধর্ষণে সহয়তাকারী হিসেবে উল্লেখ করা হয়।

ফরিদগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ শহীদ হোসেন বলেন, মামলা গ্রহণ করে তাঁরা তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছেন। প্রধান অভিযুক্ত শিমুলকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। এ জন্য তাঁরা ফেসবুকের মাধ্যমে লোকজনের সহায়তা চেয়েছেন। আটক লিপি বেগমকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়। বাকি দুজনকে মঙ্গলবার আদালতে হস্তান্তর করা হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন