default-image

ফরিদপুরের সালথায় এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে যদুনন্দী ইউনিয়নের সাধুহাটি উজিরপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত ব্যক্তির নাম মো. ওলিয়ার শেখ (৫০)।

ওলিয়ার শেখ উজিরপুর গ্রামের সাধুহাটি মহল্লার আদম শেখের ছেলে। তিনি একজন কৃষক ছিলেন। চার মেয়ে ও দুই ছেলের বাবা তিনি।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, মেয়ের বিয়েসংক্রান্ত কাজের জন্য গচ্ছিত টাকা নিয়ে ওলিয়ার শেখের সঙ্গে বিরোধ চলে আসছিল ওই গ্রামের তিন ব্যক্তির। এই বিরোধের জেরে এ হত্যার ঘটনা ঘটে থাকতে পারে।

নিহত ব্যক্তির ছেলে মুশা শেখ বলেন, রাতে বাবা বাড়িতে ফেরার পথে মো. ইসাহাকের বাড়ির সামনে হামলার শিকার হন। আগে থেকে ওত পেতে থাকা দুর্বৃত্তরা বাবাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপাতে শুরু করে। বাবা দৌড়ে বাড়িতে আসার চেষ্টা করেন। বাবার চিৎকার শুনে এগিয়ে গেলে দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়। গুরুতর আহত অবস্থায় বাবাকে উদ্ধার করে ফরিদপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে তিনি মারা যান।

এ খবরের সত্যতা নিশ্চিত করে নগরকান্দা ও সালথা সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার মো. সুমিনুর রহমান বলেন, এই হত্যাকাণ্ডে পাঁচ থেকে ছয়জন অংশ নেয়। মৃত্যুর আগে ওলিয়ার শেখ দুর্বৃত্তদের মধ্যে একজনকে চিনতে পারেন। মৃত্যুর আগে তিনি তার নাম বলে গেছেন। দুর্বৃত্তদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছে। এ ঘটনায় নিহত ব্যক্তির স্ত্রী বাদী হয়ে থানায় একটি হত্যা মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন