মেসাস করিম জুট স্পিনার্স লিমিটেডের দুটি পাটের গোডাউনে অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে ফরিদপুর, মধুখালী, বোয়ালমারী, সালতা ও রাজবাড়ী ফায়ার সার্ভিসের ৫টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করছে। আজ আজ মঙ্গলবার দুপুরে
মেসাস করিম জুট স্পিনার্স লিমিটেডের দুটি পাটের গোডাউনে অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে ফরিদপুর, মধুখালী, বোয়ালমারী, সালতা ও রাজবাড়ী ফায়ার সার্ভিসের ৫টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করছে। আজ আজ মঙ্গলবার দুপুরেপ্রথম আলো

ফরিদপুর সদরের কানাইপুরে অবস্থিত মেসার্স করিম জুট স্পিনার্স মিলে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। ওই মিলের জুট সেক্টরে আজ মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে আগুন লাগে। প্রথমে ১৯ নম্বর গোডাউনে আগুন দেখা যায়। পরে আগুন ২০ নম্বর গুদামে ছড়িয়ে পড়ে।

আগুন নেভানোর জন্য ফরিদপুর, মধুখালী, বোয়ালমারী, সালথা উপজেলা ও রাজবাড়ী জেলার দমকল বাহিনীর একটি করে ইউনিটের ১০টি মেশিন দিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণের কাজ চলছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত আগুন বেলা দুইটা পর্যন্ত নিয়ন্ত্রণে আসেনি। তবে আগুন লাগার তাৎক্ষণিক কোনো কারণ জানা যায়নি।

ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক অতুল সরকার, সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাসুম রেজাসহ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন ব্যক্তিরা ঘটনাস্থলে অবস্থান করে আগুন নির্বাপণের কাজ পর্যবেক্ষণ ও তদারকি করছেন।

default-image

মিলের ওই বিভাগের বিভাগীয় প্রধান মো. রমজান মিয়া বলেন, ‘১৯ ও ২০ নম্বর গোডাউনে মোট ৮০ হাজার মণ পাট ছিল। প্রথমে ১৯ নম্বর গোডাউন থেকে ধোঁয়া বের হতে দেখা যায়। পরে আমরা দ্রুত ফায়ার ব্রিগেডকে খবর দিই এবং নিজেরাও আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করি।’

বিজ্ঞাপন

মিলসংলগ্ন এলাকার বাসিন্দা চায়ের দোকানদার নীরদ রায় বলেন, ‘প্রথমে সাদা ধোঁয়া, পরে কালো ধোঁয়া দেখা যায়। পরে দমকল বাহিনী আসার পর মিল কর্তৃপক্ষ মিলের মূল ফটক বন্ধ করে দেয়। ফলে আমরা সেখানে ঢুকতে পারিনি।’

ফরিদপুর ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের ব্যবস্থাপক মো. নজরুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা দুপুর পৌনে ১২টা থেকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করছি। কিন্তু আগুন এখনো নিয়ন্ত্রণের বাইরে রয়েছে।’ তিনি বলেন, আগুন নেভার পর জানা যাবে কী পরিমাণ ক্ষতি হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন