ফরিদপুরে সংঘর্ষে একজন নিহত

বিজ্ঞাপন
default-image

ফরিদপুরের বোয়ালমারীতে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে সংঘর্ষে একজন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার সকাল সাতটার দিকে উপজেলার গুনবাহা ইউনিয়নের সোনানগর গ্রামে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ সময় গুরুতর আহত হন হায়াত আলী (৪৯)। ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রাত আটটার দিকে মারা যান তিনি। হায়াত আলী পাশের আলফাডাঙ্গা উপজেলার উথলী গ্রামের বাসিন্দা।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার সকাল ৭টার দিকে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জেরে সোনানগর গ্রামের আজিম শেখ ও বাদশা শেখের মধ্যে বচসা হয়। এর একপর্যায়ে ওই দুজনের অনুসারীরা সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। এ সময় আজিম শেখের অনুসারী হায়াত আলী গুরুতর আহত হন। তাঁকে প্রথমে বোয়ালমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। পরে চিকিৎসকদের পরামর্শে সেখান থেকে তাঁকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। এই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার রাত আটটার দিকে মারা যান হায়াত আলী।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এক পক্ষের নেতা আজিম শেখ বাদী হয়ে মঙ্গলবার রাতে বোয়ালমারী থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এতে আসামি হিসেবে ১১ জনের নাম উল্লেখ করেন তিনি। পুলিশ এজাহারভুক্ত আসামি ইনামুল শেখ (৩৯) ও হানিফ শেখকে (৪২) গ্রেপ্তার করেছে।

বোয়ালমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আমিনুল রহমান বলেন, এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। গ্রেপ্তার হওয়া দুজনকে রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন জানিয়ে বুধবার ফরিদপুর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। মামলার অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন