default-image

ফেনীতে আরও ১৪ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় কোভিড-১৯ রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল ১ হাজার ১৮। এর মধ্যে ২১ জন মারা গেছেন। মোট সুস্থ হয়েছেন ৬৭৬ জন।

সংক্রমিত ১৯ জনকে ঢাকাসহ অন্যত্র স্থানান্তর করা হয়েছে। বর্তমানে সংক্রমিত ২৩ জন ফেনী জেনারেল হাসপাতাল ও দাগনভূঞা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি রয়েছেন এবং অন্যরা স্বাস্থ্য বিভাগের অধীনে হোম আইসোলেশনে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন। আজ রোববার দুপুরে প্রথম আলোকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন ভারপ্রাপ্ত সিভিল সার্জন এস এম মাসুদ রানা।

নতুন শনাক্ত হওয়ায় ১৪ জনের মধ্যে ফেনী সদর উপজেলায় ৮ জন, পরশুরামে ৩ জন, ছাগলনাইয়ায় ২ জন ও ফুলগাজী উপজেলায় ১ জন রয়েছেন।

জেলায় মোট ১ হাজার ১৮ জন কোভিড-১৯ রোগীর মধ্যে ফেনী সদর উপজেলায় ৩৯৭ জন, দাগনভূঞা উপজেলায় ২১১, সোনাগাজীতে ১৭৩, ছাগলনাইয়া উপজেলায় ১১৯, পরশুরামে ৫১ ও ফুলগাজীতে ৫৩ জন রয়েছেন।

জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্য অনুযায়ী, গত ১৬ এপ্রিল জেলার ছাগলনাইয়া উপজেলার রাধানগর ইউনিয়নের পশ্চিম মধুগ্রামে প্রথম এক তরুণ করোনায় সংক্রমিত হন। তিনি ঢাকার মোহাম্মদপুর এলাকায় চাকরি করতেন।

এ পর্যন্ত জেলায় ৫ হাজার ৭৪৩ জনের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য চট্টগ্রামের ফৌজদারহাটে বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেজ (বিআইটিআইডি), চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও অ্যানিমেল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় এবং নোয়াখালী আবদুল মালেক উকিল মেডিকেল কলেজে পাঠানো হয়। আজ রোববার পর্যন্ত ৫ হাজার ৫৬৬ জনের নমুনা পরীক্ষার প্রতিবেদন পাওয়া গেছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0