default-image

ফেনীতে নতুন করে ব্যাংক কর্মকর্তা, সরকারি কর্মচারীসহ ২৯ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় কোভিড–১৯ রোগে সংক্রমিত ব্যক্তির সংখ্যা দাঁড়াল ৯৯৮। এর মধ্যে ২১ জন মারা গেছেন। সুস্থ হয়েছেন মোট ৬৬৫ জন।

নতুন করে সংক্রমিত ২১ জনকে ঢাকাসহ অন্যত্র স্থানান্তর করা হয়। বর্তমানে কোভিড-১৯ সংক্রমিত ২৬ জন রোগী ফেনী জেনারেল হাসপাতাল ও দাগনভূঞা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি রয়েছেন। অন্যরা স্বাস্থ্য বিভাগের অধীন হোম আইসোলেশনে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন। ফেনীর ভারপ্রাপ্ত সিভিল সার্জন এস এম মাসুদ রানা আজ শুক্রবার বিকেলে প্রথম আলোকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

নতুন আক্রান্ত ২৯ জনের মধ্যে ফেনী সদর উপজেলার ১১ জন, দাগনভূঞার ২ জন, সোনাগাজী পৌর শহরের একটি সরকারি ব্যাংকের কর্মকর্তা, দুজন সরকারি কর্মচারীসহ ১০ জন, ছাগলনাইয়া উপজেলার ৩ জন, পরশুরাম উপজেলার ৩ জন রয়েছেন।

জেলায় মোট ৯৯৮ জন কোভিড-১৯ রোগীর মধ্যে ফেনী সদর উপজেলায় ৩৮৯ জন, দাগনভূঞা উপজেলায় ২০৯ জন, সোনাগাজীতে ১৭৩ জন, ছাগলনাইয়া উপজেলায় ১১৭ জন, পরশুরামে ৪৬ জন ও ফুলগাজীতে ৫০ জন রয়েছেন।

জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্য অনুযায়ী, গত ১৬ এপ্রিল জেলার ছাগলনাইয়া উপজেলার রাধানগর ইউনিয়নের পশ্চিম মধুগ্রামে প্রথম এক তরুণ কোভিড-১৯ রোগে সংক্রমিত হন। তিনি ঢাকার মোহাম্মদপুর এলাকায় চাকরি করতেন।

এ পর্যন্ত জেলায় ৫ হাজার ৫৬৫ জনের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য চট্টগ্রামের ফৌজদারহাটে বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস (বিআইটিআইডি), চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও অ্যানিমেল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় এবং নোয়াখালী আবদুল মালেক উকিল মেডিকেল কলেজে পাঠানো হয়। গতকাল বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ৫ হাজার ৪৭৫ জনের নমুনা পরীক্ষার প্রতিবেদন পাওয়া গেছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন